বঙ্গবন্ধু আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেটে খেলছেন চাঁদপুরের সাদ্দাম হোসেন

সাদ্দাম হোসেন। ছবি: ফোকাস মোহনা.কম।

চাঁদপুর: ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় (বঙ্গবন্ধু তৃতীয় ইন্টার ইউনিভার্সিটি স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশীপ) ক্রিকেট টুর্নামেন্টে খেলছেন চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের সাদ্দাম হোসেন। এর আগেও সাদ্দাম হোসেন চাঁদপুরের হয়ে প্রথম বাংলাদেশ জাতীয় অনুর্ধ্ব ১৭ ও ১৯ ক্রিকেট দলের হয়ে খেলেছেন সাবেক বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচ ডেভ হোয়াটমোরের নেতৃত্বে। যুব ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের ব্যবস্থাপনায় এ টুর্নামেন্টে তিনি স্টামফোট ইউনিভার্সিটির ক্রিকেট দলে অলরাউন্ডার হিসেবে নিয়মিত খেলছেন। দলের অধিনায়ক হিসেবে প্রতিটি ম্যাচেই খেলেছেন ওপেনার হিসেবে।

ফরিদগঞ্জ উপজেলার কাছিয়ারা এলাকার সাদ্দাম হোসেন এই টুর্নামেন্টে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের হয়ে তৃতীয়বারের মতো খেলছেন। একজন ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে দলের হয়ে মুল একাদশেই নিয়মিত খেলে যাচ্ছেন। তিনি চাঁদপুর স্টেডিয়ামে চলমান বিসিবি কাউন্সিলর কাপ টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের পরিচালনা কমিটির সম্বনয়ক ও টেজ্রারের দায়িত্বে রয়েছেন। নিরলসভাবে কাজ করেছেন টুর্নামেন্টটিতে। কখনো টুর্নামেন্টের পরিচালনার দায়িত্বে, কখনো খেলার লাইভ চলাকালে ধারাভাষ্যে আবার টুর্নামেন্টের একটি দলের হয়েও মাঠে নেমেছেন। ঢাকার মাঠে বিভিন্ন দলের হয়ে বিভিন্ন সময়ে খেলে যাচ্ছেন এই অলরাউন্ডার ক্রিকেটার। একজন পরিশ্রমী ক্রিকেটার হিসেবে রয়েছে তার পরিচিতি। ব্যাটিং করেন ওয়ানডাউনে। যখন যে দলের কিংবা ক্লাবের হয়ে খেলেন চেষ্টা করনে ক্রীড়ামোদী দর্শকদেও মন জয় করতে। খেলার মাঠে থেকেই দীর্ঘদিন ধরে লড়াই করে যাচ্ছেন জাতীয় দলের হয়ে খেলার।

গত ২৪ শে সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় মুঠোফোনে এ ক্রিকেটারের সাথে আলাপকালে জানায়, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে আয়োজিত এ টুর্নামেন্টে তিনি নিয়মিতই খেলছেন। এবারের টুর্নামেন্টে তার দল স্টামফোট ইউনিভার্সিটিসহ দেশের ৭৮ দল অংশ নিয়েছে। বিশ^বিদ্যালয়ের দলগুলো খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হচ্ছে মোহাম্মদপুর ইউল্যাব মাঠ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও পুর্বাচল গ্রীন ইউনিভার্সিটির মাঠে। তার দল সেমিফাইনাল পর্যন্ত উঠে। সেমিফাইনালে তার দল আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাথে হেরে যায়। টুর্নামেন্টের তৃতীয় নির্ধারনী ম্যাচ বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। তার দল স্টাম্পফোট ইউনির্ভাসিটি খেলবে ওই ম্যাচে গ্রীন ইউনিভার্সিটি ক্রিকেট দলের সাথে।

ঢাকায় অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টে তার দল ৫ ম্যাচে অংশ নেয়ার সুযোগ পায়। এর মধ্যে ৪ ম্যাচের খেলা হলেও একটি ম্যাচ বৃষ্টির জন্য পরিত্যাক্ত ঘোষণা করা হয়। ৪ ম্যাচেই মূল একাদশের হয়েই মাঠে নেমেছেন। তার প্রতিপক্ষ দলগুলো ছিলো সাউথইষ্ট ইউনিভার্সিটি , জগন্নাথ ইউনিভার্সিটি, লিডিং ইউনিভার্সিটি ও আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। ৪ ম্যাচে ব্যাট হাতে করেছেন ১৪২ রান ও ২ ম্যাচে বল করে পেয়েছেন ২ উইকেট।
ফম/এমএমএ/চৌইই/

চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম | ফোকাস মোহনা.কম