অধিনায়কত্ব পেলেন সাকিব আল হাসান

ফাইল ছবি।

বিসিবির অনুমতি না নিয়ে বেটিং কম্পানির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পরও শাস্তি থেকে রেহাই পেয়ে গেলেন সাকিব আল হাসান। বরং তাকে দেওয়া হলো টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের নেতৃত্বভার। আসন্ন এশিয়া কাপে সাকিবের নেতৃত্বেই খেলবে বাংলাদেশ দল। আসন্ন এশিয়া কাপ, নিউজিল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য সাকিবকে অধিনায়ক করা হয়েছে।

শনিবার (১৩ আগষ্ট)  বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের বাসায় দীর্ঘ সভার পর এই সিদ্ধান্ত হয়।

সভা থেকে বেরিয়ে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস সাংবাদিকদের বলেন, এটা নিয়ে আগেই বিসিবিতে একটা সিদ্ধান্ত ছিল। আজও এখানে অনেক আলোচনা হয়েছে। বিসিবি প্রেসিডেন্ট ছিলেন। সামনে আমাদের এশিয়া কাপ আছে। এরপর নিউজিল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ এবং বিশ্বকাপ। এই তিনটি সিরিজের জন্য আমরা সাকিব আল হাসানকে অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করছি। পরবর্তীতে আমরা তাকে অধিনায়ক হিসেবে রাখব কিনা, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।

অবশ্য গত পরশু গনমাধ্যমে  দেওয়া সাক্ষাতকারে জালাল ইউনুস বলেছিলেন, বিসিবিকে না জানিয়ে এই চুক্তি করে সাকিব বোর্ডের সঙ্গে চুক্তিভঙ্গ করেছেন। তিনি বলেছিলেন, ‘এটি অবশ্যই চুক্তিভঙ্গ। ওর অনুমতি না নেওয়াটাই প্রথম ভুল। প্লেয়ার্স কন্ট্রাক্টে পরিষ্কার লেখা আছে, চুক্তির আগে অনুমতি নিতে হবে। এটি নিয়েও আলোচনা হয়েছে। এটি হতে পারে না। ওকে (সাকিব) স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে এ রকম হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফম/এমএমএ/

স্পোর্টস ডেস্ক | ফোকাস মোহনা.কম