পাইকগাছায় বাল্য বিবাহ প্রস্তুতিকালে বরসহ আটক ৭

পাইকগাছা (খুলনা) : খুলনার পাইকগাছায় বাল্য বিবাহের  প্রস্তুতিকালে আইনজীবীর বাসা থেকে ১১ বছরের মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার,বর সহ আটক ৭ জন।
জানা যায়, রবিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে পৌরসভা সদরের আইনজীবীর বাসা থেকে শিশু শিক্ষার্থীকে উদ্ধার পূর্বক বর-কনে দু’পরিবারের ৭ জনকে আটক করে থানা হেফাজতে নেওয়া  হয়।কনে গড়ইখালী ইউনিয়নের ফকিরাবাদ গ্রামের নহর আলীর মেয়ে এবং শান্তা মহিলা মাদ্রাসার ৫ম শ্রেনীর ছাত্রী।
সুত্রে জানা যায়, কনে শিশু শিক্ষার্থী ও কয়রার সাতহালিয়া গ্রামের কেরামত ঢালীর ছেলে বর রেজয়ান ঢালী (২১)কে নিজ বাসাবাড়িতে রেখে আইনজীবী তাহার চেম্বারে দু’পরিবারের স্বজনদের নিয়ে বাল্য বিয়ের প্রস্তুতি করছিল।যে খবরটি মুহুর্তেই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগমের কাছে পৌছায়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে থানা পুলিশ ও উপজেলা আনছার ভিডিপির প্রশিক্ষক আলতাফ হোসেন সহ অন্যান্য সদস্যগণ আইনজীবী  বাড়ীতে ও চেম্বরে অভিযান চালিয়ে ৭ জনকে আটক করে। আটককৃতদের মধ্যে ২ জন মহিলা সহ রয়েছেন বর রেজায়ান ঢালী,বরের মামা হযরত শেখ,ভগ্নিপতি ইয়াসিন গাজী, কনের নানা গড়ইখালীর খোকন গাইন।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ওসি জিয়াউর রহমান বলেন, বাল্য বিবাহের  প্রস্তুতিকালে শিশু শিক্ষার্থী উদ্ধার সহ আইনজীবীর বাসা ও চেম্বার থেকে ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। ইতোপূর্বে উক্ত আইনজীবীর বিরুদ্ধে একাধিক  বাল্য বিবাহের অভিযোগ রয়েছে।
ফম/এমএমএ/

শেখ খায়রুল ইসলাম | ফোকাস মোহনা.কম