বঙ্গবন্ধুই বিচারকদের মৌলিক অধিকারকে সংবিধানে সন্নিবেশিত করেন

---- চাঁদপুর জেলা ও দায়রা জজ এস এম জিয়াউর রহমান

বঙ্গবন্ধুর ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকীতে চাঁদপুর বিচার বিভাগের আয়োজনে শোকসভায় সভাপতির বক্তব্য রাখছেন জেলা ও দায়রা জজ এস এম জিয়াউর রহমান।  ছবি: ইয়াসিন ইকরাম। 

বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকীতে চাঁদপুর বিচার বিভাগের শোকসভা
চাঁদপুর: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান,  বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবসহ বঙ্গবন্ধু পরিবারের নিহত সদস্যদের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে চাঁদপুর বিচার বিভাগের আয়োজনে শোকসভা,  কোরআনখানী, মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (১৫ আগষ্ট) সকালে শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গনে জাতীয় পতাকা অধনিমিত শেষে শোকসভার আয়োজন করা হয়।  সহযোগিতায় ছিলেন চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতি।

জেলা জজ আদালতের সম্মেলন কক্ষে শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা ও দায়রা জজ এস এম জিয়াউর রহমান।

 তিনি বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধু বিচার বিভাগের স্বাধীনতার জন্য  সবসময়ই স্বপ্ন দেখতেন।  মহান এই নেতার বিচার বিভাগ সম্পর্কে ভালো ধারনা ছিল। তিনি এদেশকে ভালোবেসে যে আত্মত্যাগ করে গেছেন তার প্রেক্ষিতে আমাদের সবার কর্তব্য হবে মানুষ যেনো কম খরচে দ্রুত ও সঠিকভাবে আদালতে ন্যায় বিচার পায় তার চেষ্টা করা।

তিনি আরো বলেন,  ৬৬ ছয় দফা, ৬৯ গনঅভ্যুথান সহ বিভিন্ন জাতীয় আন্দোলনে আমরা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বের পরিচয় পাই। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭২ সালে পাকিস্তান থেকে মুক্তি পেয়ে দেশে ফিরে দেশ গঠনে যখন মনোনিবেশ করেন। তখন বিচারবিভাগের স্বাধীনতা,  বিচারকদের স্বাধীনতা ও মৌলিক অধিকারকে সংবিধানে সন্নিবেশিত করেন।

জেলা জজ বলেন,  দেশি বিদেশী ষড়যন্ত্রকারীরা বঙ্গবন্ধুর দেশ গঠনের প্রক্রিয়াকে সহ্য করতে পারেন নি। তিনি শুধু বাংলাদেশের নেতাই নন,  সারা বিশ্বের শ্রেষ্ঠ নেতাদের মধ্যে একজন।

শোকসভায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন  নারী ও শিশু নিযাতন দমন ট্রাইবুন্যালের বিচারক জান্নাতুল ফেরদাউস চৌধুরী,  চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সামছুল ইসলাম,  অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ফারহানা ইয়াছমিন,  জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডঃ কামাল উদ্দিন আহমেদ,  যুগ্ম ও জেলা দায়রা জজ (১) শাহেদুল করিম, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ (২) অরুণ পাল, অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ হাসান, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ কামাল হোসেন, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্টেট শফিকুল ইসলাম,  সিনিয়র সহকারী জজ মোঃ মহিউদ্দিন,  সহকারী জজ ইবরাহিম সরকার।

সহকারী জজ ফাতেমা তুজ জোহরার সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক অ্যাডঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন,  জেলা জজ আদালতের পিপি অ্যাডঃ রনজিত রায় চৌধুরী,  জেলা আইনজীবী সমিতির আইনজীবী অ্যাডঃ আব্দুর রহমান,  জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি শেখ জহিরুল ইসলাম,  সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডঃ মুজিবুর রহমান ভূইয়া,  অ্যাডঃ রুহল আমিন সরকার, অ্যাডঃ জসিমউদদীন পাটওয়ারী সেরেস্তাদার আব্দুল ওয়াদুদ ও চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের নাজির ফখরুদ্দিন প্রমুখ।

ফম/এমএমএ/চৌইই/

চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম | ফোকাস মোহনা.কম