পরিত্যক্ত জায়গায় ওসি মহিউদ্দিনের সবজির আবাদ

মতলব উত্তর থানার ওসি মো. মহিউদ্দিন। ছবি: ফোকাস মোহানা.কম।

মতলব উত্তর (চাঁদপুর): চাঁদপুরে মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মহিউদ্দিনের উদ্যোগে পরিত্যাক্ত জায়গায় বিভিন্ন প্রকার সবজি চাষ করা হয়েছে।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) সবজি বাগানটি ঘুরে দেখেন এ প্রতিবেদক।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, থানা চত্বরে সুসজ্জিত একটি সবজির ক্ষেত। এখানে কলমি শাক, পুঁইশাক, লালশাক, পালং শাক, মূলাশাক, সিম চাষ, করলার চাষ, বেগুন, পেঁপে ও ঢেঁড়সসহ বিভিন্ন জাতের সবজি চাষ করা হয়েছে। থানা সংশ্লিষ্ট সবাই বাজার থেকে সবজি না কিনে এখান থেকে সবজি তুলে থানার ম্যাচসহ পরিবারের সবজি চাহিদা মেটাচ্ছেন তারা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দেশের এক খন্ড জমিও যেন অনাবাদী না থাকে। ফসল উৎপাদনে বেশি নজর দিতে হবে। যারা ঘরে বসে আছেন ছাদে বাগান করুন, জমি থাকলে গাছ লাগানোর কাজ আপনারা নির্বিঘেœ করতে পারেন।’ এরই পরিপ্রেক্ষিতে থানা চত্বরে পরিত্যক্ত জায়গা পরিষ্কার করে চাষ করা হয়েছে নানা ধরনের সবজির ক্ষেত। যেন সবুজের সমারোহ। এখানকার আবাদকৃত শাক-সবজি ক্ষেত থেকে তুলে থানার অফিসার ও ফোর্সসহ সবাই পরিবারের অনেকটা চাহিদা পূরণ করছেন। পরিত্যক্ত জায়গার সদ্ব্যবহার ও সবুজ শ্যামল মনোরম পরিবেশ তৈরি করে বেশ সুনাম অর্জন করেছেন মতলব উত্তর ওসি মোঃ মহিউদ্দিন। সবজির বাগান পরিচর্যার দায়িত্বে রয়েছেন এএসআই মোঃ আতিকুর রহমান মিয়াজী।

এ বিষয়ে ওসি মোঃ মহিউদ্দিন বলেন, ‘দেশের এক ইঞ্চি জমিও যেন পতিত না থাকে।’ প্রধানমন্ত্রীর ওই নির্দেশনা বাস্তবায়নে পুলিশ সুপার মহোদয়ের নির্দেশনায় থানা প্রাঙ্গণের আনাচে-কানাচে পতিত জায়গা আছে সেখানেই শাক সবজির বাগান করতে হবে। তারই ধারাবাহিকতায় থানার চারিদিকে বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজি চাষ করেছি। এক সবজি উঠার পরেই আবার নতুন করে সবজি চাষ করা হয়। তিনি আরও বলেন, বিষ মুক্ত সবজি খেতে পারছি এটা একটা নেয়ামত। থানা প্রাঙ্গণে সবজি আবাদ দেখে সেবা নিত আসা মানুষেরা ও উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন। তাদের বাড়ির আঙ্গিণায় সবজি আবাদে উৎসাহিত হবে বলে মনে করছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

ফম/এমএমএ/আরাফাত/

আরাফাত আল-আমিন | ফোকাস মোহনা.কম