কুমিল্লায় ডাকাতিরপর গৃহবধূকে খুনের মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

কুমিল্লা: কুমিল্লায় ডাকাতির পর গৃহবধূকে হত্যার দায়ে ৬ আসামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। সেই সাথে প্রত্যেক আসামীকে দশ হাজার টাকা অনাদায়ে আরো ছয়মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

বুধবার (৩০নভেম্বর) বেলা ১২ টায় কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ পঞ্চম আদালতের বিচারক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন এ রায় দেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. জাকির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার বড়সাতপাড়া গ্রামের কাউছার ওরফে অপূর্ব, মুরাদনগর উপজেলার বরইয়া কুড়ি গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম, দাউদকান্দি সাতপাড়া গ্রামের শফিকুল বাসার, একই গ্রামের আক্তার হোসেন, লালচান স্বর্ণকার ও দেবিদ্বার উপজেলার ভানি গ্রামের মহসিন। রায় ঘোষণার সময় কাউছার ছাড়া সবাই উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. জাকির হোসেন জানান, আসামীরা ২০০৭ সালের ১৯ জানুয়ারি রাতে একদল ডাকাত দাউদকান্দি উপজেলার ইলিয়টগঞ্জে  ডাকাতি করতে গিয়ে গৃহবধূ শাহনাজ বেগমকে খুন করে। ঘটনার দিন গৃহবধূর স্বামী ব্যবসার কাজে ঢাকায় ছিলেন। এ ঘটনায় নিহতের বাবা সৈয়দ আহমেদ বাদী হয়ে দাউদকান্দি থানায় হত্যা ও ডাকাতির মামলা দায়ের করেন।
কুমিল্লা কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মুজিবুর রহমান বলেন, রায় ঘোষণার আসামীদের কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় কাউছার ছাড়া সবাই উপস্থিত ছিল।
ফম/এমএমএ/

তাপস চন্দ্র সরকার | ফোকাস মোহনা.কম