কচুয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় ব্যবসায়ী আহত

কচুয়া (চাঁদপুর): চাঁদপুরের কচুয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একই বাড়ির আলী আক্কাস বেপারী (৩৫)  নামে ব্যবসায়ীর ওপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত রবিবার সকালে উপজেলার কাদলা ইউনিয়নের কাদলা বেপারী সামনের রাস্থায়। আহত আলী আক্কাস কাদলা বেপারী বাড়ির মৃত আইয়ুব আলীর বেপারীর ছেলে।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আহত আলী আক্কাস বেপারীর ভাই মোয়াজ্জেম হোসের বেপারী বাদী হয়ে কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। বিবাধীরা হলেন- ১. আলী আহম্মদ বেপারী ছেলে হাবিব বেপারী (৫০), ২. আলী আহম্মদ বেপারী ছেলে আজিজ বেপারী, ৩. আলী হোসেনের ছেলে বিল্লাল হোসেন (৪৮) সহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, আলী আক্কাস বেপারী ও বিবাধীরা একই বাড়ির। তাদের সাথে পূর্ব থেকেই জায়গা জমির বিষয় নিয়ে পারিবারিক দ্বন্দ ছিল। ওই দ্বন্দকে কেন্দ্র করে রবিবার সকাল সাড়ে ৭টায় আলী আক্কাস বেপারী রঘুনাথপুর বাজারে দোকানে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়ে বেপারী বাড়ির সামনের রাস্তায় আসলে হাবিব,আজিজ, বিল্লাল সহ অজ্ঞাত  ৪/৫ জন মিলে দেশীয় অস্ত্র দা,লোহার রড নিয়ে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে আমার ভাই আলী আক্কাস বেপারীর পথরোধ করে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাথাড়ি ভাবে পিটাইয়া কিলঘুষি, লাথি মেরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাতে, পায়ে, রানে, সিনায়, গলায় নীলাফুলা জখম করে। ১নং বিবাধীর হাতে থাকা কাঠের রুয়া দিয়ে আমার ভাইকে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় আঘাত করতে গেলে জীবন রক্ষার্থে বাম হাত দিয়ে ফিরাতে গেলে হাতের কব্জি ও বৃদ্ধা আঙ্গুলে পড়লে মারাত্মক হাড় ভাঙ্গা জখম হয়। ২নং বিবাধী  এলোপাথাড়ি ভাবে মারধর করে নীলাফুলা থেতলানো রক্তাক্ত জখম করে আমার ভাইয়ের হাতে থাকা ব্যাগ থেকে দোকানের চাবি ও ২ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। ৩নং বিবাধী আমার ভাইয়ের বুকের উপরের বসে হত্যার উদ্দেশ্যে গলা চেপে ধরে শ্বাসরোধ করার চেষ্টা করে। আমার ভাইয়ের ডাক চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন আমার ভাই আহত আলী আক্কাস বেপারীকে উদ্ধার করে আশংকা  জনক অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে কচুয়া থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইব্রাহিম খলীল বলেন, এ ধরনের একটি অভিযোগ পেয়েছি।  তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ফম/মহসিন/এমএমএ/

মো. মহসিন হোসাইন | ফোকাস মোহনা.কম