রায়পুরে স্কুলছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ, দুই যুবক গ্রেপ্তার

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে ভাড়া বাসায় রেখে ধর্ষণের ঘটনায় মো. রাব্বি ও মো. হৃদয় নামের দুই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে র‍্যাব-১১-এর নোয়াখালী ক্যাম্পের কম্পানি অধিনায়ক খন্দকার শামীম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে আজ (১০ মে) ভোররাত ৩টার দিকে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সমসেরাবাদ এলাকার হাসপাতাল রোডের একটি ভাড়া বাসা থেকে ছাত্রীকে উদ্ধার ও দুই যুবককে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। গ্রেপ্তারকৃত রাব্বি উপজেলার চরপাতা ইউনিয়নের পূর্ব চরপাতা গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে ও তার সহযোগী হৃদয় সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়নের এনায়েতপুর গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে।

র‍্যাব সূত্র জানায়, ৮ মে সন্ধ্যায় স্কুলছাত্রী পূর্ব চরপাতা গ্রামে খালার বাড়ির পেছনে টিউবওয়েল থেকে পানি আনতে যায়। এ সময় পূর্বপরিকল্পিতভাবে রাব্বি তাকে অপহরণ করেন। এতে রাব্বিকে হৃদয় সহযোগিতা করেন। পরে ছাত্রীকে লক্ষ্মীপুর পৌরভার হাসপাতাল রোড এলাকার ভাড়া বাসায় (পান্থ নিবাসের নিচতলা) এনে রাখেন। সবার কাছে রাব্বি তাকে তার স্ত্রী পরিচয় দেন। দুই দিন বাসায় আটকে রেখে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ইচ্ছের বিরুদ্ধে জোরপূর্বক রাব্বি তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। সোমবার (৯ মে) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ছাত্রীর মামা র‍্যাব-১১-এর নোয়াখালী কার্যালয়ে অভিযোগ করেন। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় র‌্যাব আট ঘণ্টার মধ্যে ভিকটিমকে উদ্ধার এবং আসামিদের গ্রেপ্তার করে।

র‍্যাব-১১-এর নোয়াখালী ক্যাম্পের কম্পানি অধিনায়ক খন্দকার মো. শামিম হোসেন বলেন, ছাত্রীর মামা গ্রেপ্তারকৃত দুজনের বিরুদ্ধে রায়পুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আসামিদের থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।- খবর কালের কন্ঠ অনলানই।

ফম/এমএমএ/

ফোকাস মোহনা.কম