বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারি

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর): জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারি। তার ডাকে পাকিস্তানের শোষক গোষ্ঠীর হাত থেকে মুক্তি পেতে জাতি র্ধম-বর্ণ নির্বিশেষে এ দেশের কৃষক-শ্রমিক ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে দেশকে স্বাধীন করেছিল।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ও চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সদস্য, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের বিদ্যুৎ বিভাগের মহা-পরিচালক (ডিজি) প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন বলেন, বঙ্গবন্ধুর বিচক্ষণ নেতৃত্বে মাত্র ৯ মাসে এ দেশ স্বাধীন হয়েছিল। এ জন্য বঙ্গবন্ধুকে জীবনের অধিকাংশ সময় কারাভোগ করতে হয়েছে। দেশ স্বাধীন হলেও এ দেশের মানুষের আন্দোলন ও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে অবশেষে বঙ্গবন্ধুকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয় পাকিস্তান। ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি দেশে ফিরলে সর্ব স্তরের মানুষ বঙ্গবন্ধুকে এক নজর দেখতে ছুটে যান বিমানবন্দরে। সেদিন মানুষের অপার ভালোবাসায় সিক্ত হন শেখ মুজিবুর রহমান।

তিনি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রে একদল বিপথগামী সৈনিক বাঙ্গালির অবিসংবাদিত নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করে। ইতিহাসে ১৫ আগস্ট একটি কালো দিন হিসেবে খ্যা।

পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও হাজীগঞ্জ উপজেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সদস্য সোহেল আহমেদের সঞ্চালনায় ও হাজীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ হাজীগঞ্জ উপজেলা শাখার আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন বতু’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ৯নং গন্ধব্যর্পুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব কাজী নুরুর রহমান বেলাল, হাজীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সত্যব্রত ভদ্র মিঠুন, জেলা তাঁতীলীগের সাবেক সভাপতি ইঞ্জিঃ মোখলেছুর রহমান, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি নূর মোহাম্মদ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মালিগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি কাউছার, শাহরাস্তি পৌর আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুব চৌধুরী, শাহরাস্তি উপজেলা কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি মকুবুল চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগ নেতা জসিম, জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি ইস্কান্দার মিয়া, উপ সম্পাদক সুমন দর্জি, তানজীল, জেলা ছাত্রলীগের সদস্য সুমন মিয়াজী, নিরু, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য হোসেন মীর, নেছার পাটওয়ারী যুবলীগ নেতা মামুন, ছাত্রলীগ নেতা পলাশ সহ ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ের আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

ফম/এমএমএ/

মহিউদ্দিন আল আজাদ | ফোকাস মোহনা.কম