ফরিদগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে অস্ত্র ঠেঁকিয়ে চিকিৎসকের বাড়িতে ডাকাতি

ছবি: সংগ্রহীত।

চাঁদপুর : চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে ঘরে প্রবেশ করে অস্ত্র ঠেঁকিয়ে হাত পা বেঁধে এক চিকিৎসকের বাড়িতে র্দুর্ধষ ডাকাতি হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দিনগত রাতে উপজেলার রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়নের চর মুঘুয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার (১৭ মে) দুপুরে ঘটনাস্থলে গিয়ে জানাগেছে, গৃদকালিন্দিয়া বাজারের পল্লী চিকিৎসক শাহজাহাল ফরিদ প্রতিদিনের ন্যায় রাত ১০টা নাগাদ বাড়িতে গিয়ে খাবার দাবার খেয়ে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ৩ টার সময় কলাপসিবল গেটের তালা নষ্ট করে ডাকাতদল বাসায় প্রবেশ করে। পরে দরজার চিৎকেরী খোলার আওয়াজে ঘুম ভেঙে যায় তাদের। এ সময় রুমের ভিতর থেকে পরিচয় জানতে চাইলে ডাকাতদল বলে আমরা থানা থেকে আসছি পুলিশের লোক, এই বলে তাঁরা কক্ষে প্রবেশ করে ডাকাতরা শাহজাহাল ফরিদ ও তাঁর স্ত্রী ফাতেমা আক্তার নিপুকে বেঁধে রেখে নগদ টাকা ও স্বর্ণ গহনা নিয়ে যায়। ডাকাতরা যাওয়ার সময় বাসার বাহিরে লক করে চলে যায়।

ভুক্তবোগী পল্লী চিকিৎসক শাহজালাল ফরিদ বলেন, ডাকাতরা পুলিশ পরিচয় দিয়ে আমার বাসায় প্রবেশ করে। আমার গলায় ধারালো অস্ত্র ঠেঁকিয়ে আমাকে বেঁধে ফেলে। পরে তারা স্বর্ণলঙ্কার ও নগদ টাকাসহ প্রায় একলাখ টাকার মালামাল লুটে নেয়।

গৃহবধু ফাতেমা আক্তার নিপু বলেন, ডাকাতরা আমার হাত বেঁধে আলমিরার চাবি নিয়ে যায়। পরে আমার ছেলের শয়ন কক্ষের দরজার বাহির থেকে আটঁকে দেয়। তাঁরা আমাদের স্টীলের আলমিরা, কাঠের ওয়ারড্রব খুলে ও ভেঙে সকল মালামাল তছনছ করে আমার কানের দুল নিয়ে যায়।

ভুক্তভোগীর ভাই শফিকুর রহমান ফুটন বলেন, আমার ভাইয়ের বাসায় ডাকাতির খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে এসে জরুরি সেবা (৯৯৯) এ কল দিয়ে পুলিশের সহায়তা চেয়েছি। বিকেল ৫ টা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে পুলিশ আসেনি।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুল ইসলাম শুক্রবার (১৭ মে) বিকেলে এই বিষয়ে বলেন, আপনার মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরেছি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ফম/এমএমএ/

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম