কুমিল্লায় ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে ৯ ঘণ্টা পর রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

কুমিল্লা: কুমিল্লায় মালবাহী ট্রেনের তিনটি বগি লাইনচ্যুত হওয়ার সাড়ে ৯ ঘণ্টা পর তিনটি রুটে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। এতে ঢাকা-চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম-সিলেট ও ঢাকা-নোয়াখালী রেলপথে ট্রেন চলাচল শুরু করেছে।

এসব রুটে সোমবার (৯ মে) দুপুর দেড়টা থেকে ট্রেন চলাচল করে বলে জানিয়েছেন কুমিল্লা রেলওয়ের উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ) লেয়াকত আলী মজুমদার।

এর আগে সোমবার (৯ মে) ভোর ৪টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথে জেলার বুড়িচং উপজেলার রাজাপুর রেলস্টেশন এলাকায় মালবাহী কন্টেইনার ট্রেনের তিনটি বগি লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটেছে ঘটে।

দুর্ঘটনার কারণে নোয়াখালী থেকে ঢাকাগামী উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেন লাকসাম রেলওয়ে জংশনে এবং ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী তূর্ণা নিশিতা এক্সপ্রেস ব্রাহ্মণপাড়ার শশিদল স্টেশনে আটকা পড়ে। এছাড়া কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশনে পণ্যবাহী দুটিসহ আরও কয়েকটি ট্রেন বিভিন্ন স্টেশনে আটকা পড়ে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে বিকল্প পথে গন্তব্যে রওনা করেন। এরপর দুপুর দেড়টা থেকে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়।

কুমিল্লা রেলওয়ের উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ) লেয়াকত আলী মজুমদার জানান, চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী মালবাহী একটি ট্রেন সোমবার ভোর ৪টার দিকে বুড়িচং উপজেলার রাজাপুর রেলস্টেশনের কাছাকাছি এলাকায় পৌঁছলে মধ্যখানের তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়। খবর পেয়ে লাকসাম ও আখাউড়া রেলওয়ে জংশন থেকে দুইটি উদ্ধারকারী ট্রেন ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। এরই মধ্যে উদ্ধার কাজ শেষ হলে দুপুর দেড়টার দিকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। বিভিন্ন স্টেশনে আটকা পড়া ট্রেনগুলো গন্তব্যে ছেড়ে গেলো। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ওই তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয় বলে জানান তিনি।

ফম/এমএমএ/

তাপস চন্দ্র সরকার | ফোকাস মোহনা.কম