আল্লাহর অনুগ্রহ ছাড়া সুপথ পাওয়া যায় না

।। মুফতি আতাউর রহমান।। ঈমান ও ইসলাম লাভ করা এবং সুপথে চলতে পারা মহান আল্লাহর বিশেষ অনুগ্রহ। আল্লাহ যাকে ইচ্ছা তাকে সুপথে পরিচালিত করেন এবং যাকে ইচ্ছা তা থেকে বঞ্চিত করেন। আল্লাহ সুপথ দান করেন বলেই তাঁর একটি গুণবাচক নাম ‘আল-হাদি’ (যিনি সুপথ দান করেন)। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘সব প্রশংসা আল্লাহর জন্য, যিনি আমাদের এই পথ দেখিয়েছেন। ’ (সুরা : আরাফ, আয়াত : ৪৩)

হিদায়াত বা সুপথ আল্লাহ যাকে ইচ্ছা তাকে দান করেন। কোনো মানুষ কাউকে সুপথ দান করতে পারে না। আল্লাহ বলেন, ‘তুমি যাকে ভালোবাস, ইচ্ছা করলেই তাকে সৎপথে আনতে পারবে না। তবে আল্লাহই যাকে ইচ্ছা সৎপথে আনেন এবং তিনিই ভালো জানেন সৎপথ অনুসারীদের। ’ (সুরা : কাসাস, আয়াত : ৫৬)

হাদিসে কুদসিতে আল্লাহ বলেন, হে আমার বান্দারা! তোমরা সবাই পথভ্রষ্ট, কিন্তু আমি যাকে সুপথ দিয়েছি। সুতরাং তোমরা আমার কাছে সুপথ চাও, আমি তোমাদের সুপথ দান করব। (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ২৫৭৭)

সুপথের দিশা দানকারী হিসেবে মহান আল্লাহ পরিপূর্ণ গুণাবলি ও বৈশিষ্ট্যের অধিকারী। সুপথ দানের জন্য তিনিই যথেষ্ট। আল্লাহ বলেন, ‘সুপথ প্রদর্শনকারী ও সাহায্যকারী হিসেবে তোমার প্রতিপালকই যথেষ্ট। ’ (সুরা : ফুরকান, আয়াত : ৩১)

রাসুলুল্লাহ (সা.) আল্লাহর কাছে সুপথ প্রার্থনার শিক্ষা দিয়েছেন। হাদিসে এসেছে, ইসলাম গ্রহণকারীদের রাসুলুল্লাহ (সা.) নিম্নোক্ত দোয়া শেখাতেন, হে আল্লাহ! আমাকে ক্ষমা করুন, আমার প্রতি দয়া করুন, আমাকে সুপথ দান করুন এবং আমাকে জীবিকা দান করুন। (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ২৬৯৭)

আল্লাহর হাদি নামের তাৎপর্য ব্যাখ্যা করে আল্লামা জাজ্জাজি (রহ.) বলেন, যিনি সৃষ্টিজগেক তাঁর পরিচয় ও প্রভুত্ব বিষয়ে অবগত করেন এবং যিনি তাঁর বান্দাদের সুপথে পরিচালিত করেন। যেমনটি আল্লাহ বলেছেন, ‘তিনি যাকে ইচ্ছা সুপথে পরিচালিত করেন। ’ (ইশতিকাকু আসমায়িল্লাহ, পৃষ্ঠা ১৮৭)

আর আল্লামা সা’দি বলেন, যিনি বান্দাকে সব কল্যাণ লাভ এবং অকল্যাণ থেকে বেঁচে থাকার উপায় সম্পর্কে অবগত করেন। তারা যা জানে না, তিনি তাদের তা শিক্ষা দেন। তিনি তাদের জন্য ভালো কাজের পথ সুগম করেন এবং তা করার তাওফিক দেন। তাদের অন্তরগুলো নিজের দিকে ঝুঁকিয়ে দেন এবং তাতে আনুগত্যের স্পৃহা তৈরি করেন। (তাফসিরে সাদি : ৫/৩০৫)

আল-মাউসুয়াতুল আকাদিয়া

ফোকাস মোহনা.কম