হৃদয় রক্ত করে (কবিতা)

—যুবক অনার্য
মৃত্যুবৎ জন্মহর্ষ এ বেলা খুব  করে হলো
সমস্ত কৃমিকীট
সে হাটে পশ্চাতে তার
দিনগুলি রাতগুলি
অবিশ্রান্ত দ্রিমিক দ্রিমিকি তা তা থৈ
লজ্জাবতী পোশাকের ভাঁজ আর্ত চিকিৎসা
কুয়াশা বিহ্বল
অবিলম্বে ভেসে আসে কাহাদের অই এক
বিবমিষা বানিজ্যনীতি আর
অপরাহ্নে  দেখা হবে আজ
দেখা হবে ডিম্ব কুসুম অযাচিত অনুরূপা
পয়মন্ত মাংসপাড়
আজ থেকে কবিতা হোক আগুন সন্ত্রাস
আজ থেকে মক্ষীরানি হোক সতীব্রতা
আজ থেকে অধর্মই হোক মুক্তিকবজ
সে হাটে পশ্চাতে তার
সংশ্লিষ্ট দ্রিমিক দ্রিমিকি
অই হই রই
শুনো হে নষ্ট নারী
তোমাকে পূণ্যতোয়া আমি বলি
কেননা এসব আপুরুষ ঐতিহ্য পীড়ন রীতি
সমুহ ভ্রষ্ট চর্চাচরী
আহারে এমন দিনে আমার নাইরে ঝিনুক বালি
তথাস্তু রোদ্দুর হোক জল্পনা হোক
সম্ভাব্য নৈরাজ্যছায়ার
নির্বিন্ন নমস্কার তোমাদিগে
খুব বুঝি রাষ্ট রাষ্ট্র খেলা হলো
হেই নগ্নবতী আর নপুংসক পাহারাওয়ালা
অই অকথ্য প্রজাপতির
নিকটবর্তী হও
দেখোই না
না দেখা ছলে- কতো কেউ হৃদয় রক্ত করে
রাজপথে হাঁটে
 নিকটেই লাল সুর্য এক চলে গেছে
তোমাদের মুঠো ছিঁড়ে দূর বহু দূরে

ফোকাস মোহনা.কম