হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের রাজনীতি করতেন

চাঁদপুরে জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা ও আলোচনা সভায়

চাঁদপুর: চাঁদপুরে জাতীয় পার্টির ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার (১ জানুয়ারি) বিকেলে জেলা জাতীয় পার্টি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে শহরের বিপনীবাগ মার্কেটের নিচ তলায় অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুর জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক আলহাজ সিরাজুল ইসলাম সিরু মিজি।

তিনি তার বক্তব্যে বলেন, জাতী পার্টিকে ধ্বংস করতে আমাদের দলের মধ্যে কিছু লোক ঘাপটি মেরে বসে আছেন। তাদের চিহিৃত কওে, প্রতিহৃত করতে হবে। জুম্মার নামাজ হজ্বের সমতুল্য, তাই হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ জুমার দিন শুক্রবারকে ছুটি ঘোষণা করেছিলেন। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ জীবিত থাকাবস্থায় লিখিত ভাবে দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদেরকে করেছিলেন। এখন তাকে নিয়েও ষড়যন্ত্র করছে। কর্মী দিয়ে নেতা, নেতা দিয়ে কর্মী নয়। বর্তমানে আমরা দেখছি কর্মীর খবর কেউ নিচ্ছে না।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর সদর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মোহাম্মদ মহসীন খান। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ১৯৮৬ সালের ১ জানুয়ারি এই দিনে রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠা করেছিলে। সেসময় জাতীয় প্রতিষ্ঠা হয়েছিলো ক্লান্তিলগ্নে। ১৯৮২ সালে ২৪ মার্চ হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দেশের দায়িত্ব নেন। তিনি রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম করেছিলেন। তিনি ধর্ম নিয়ে কোন বৈষম্য করেন নি। যৌতুক পথা ও মেয়েদে পড়ালেখা বাধ্যতামূলক করেছিলেন। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ মৃত্যুর আগ পর্যন্ত মামলা কাধে নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছিলো। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ উন্নয়ন, গণতন্ত্রের রাজনীতি করছিলেন।

চাঁদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সদস্য সচিব মো. কামরুল ইসলামের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সদস্য মো. দেলোয়ার হোসেন খান, জেলা ছাত্র সমাজের সাবেক সভাপতি আজিজুর রহমার শামীম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির যুগ্ম-আহ্বায়ক সাগর মিয়া, জেলা মহিলা পার্টির সাবেক সদস্য সচিব ফারিয়া চৌধুরী সেলিনা।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন পৌর যুব সংহতির সদস্য মো. জয়নাল আবেদীন, খলিল সরকার, সুলতান বেপারী, রাশেদ মিয়া, ১নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির সদস্য আবুল কালাম খন্দকার, ২নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির সভাপতি সেন্তু বেপারী, সাধারণ সম্পাদক সিরু ছৈয়াল, সহ-সভাপতি আলী মুন্স, রেজ্জাক গাজী, সদস্য জামাল দেওয়ান, আইজল বেপারী, জনু বেপারী, রশিদ বরকন্দাজ, খোকন, ৩নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মিজি, ৪নং ওয়ার্ডে নেতা আল আমিন, ৭নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ, সদস্য মো. বিল্লাল বেপারী, ৮নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টি নেতা মো. মনির, ৯নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির সভাপতি নুরুজ্জামান কালু, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, সাংগঠনিক সম্পাদ জসিম বকাউল, নেতা মাসুম বেপারী, হাফেজ ঢালী, ছৈয়দ আলী, কামাল, মুনসুর আলী গাজী, বিটু ছৈয়ালসহ জাতীয় পার্টি, যুব সংহতির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা।

ফম/এমএমএ/

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি | ফোকাস মোহনা.কম