হাজীগঞ্জে গুজব ছড়িয়ে বেশি দামে লবণ বিক্রি, দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা

হাজীগঞ্জ: চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে গুজব ছড়িয়ে বেশি দামে লবণ বিক্রির দায়ে দুইজনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বৈশাখী বড়ুয়া হাজীগঞ্জ বাজারে অভিযান চালিয়ে দুই ব্যবসায়ীকে মোট ৯ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

‘লবণের কেজি ২শ টাকা হবে’ হঠাৎ করেই এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ে উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে। সেই গুজবে দোকানে লবণ কিনতে ভিড় করেন সাধারণ মানুষ। গ্রামের বাজার থেকে হঠাৎ উধাও হয়ে যায় লবণ।

মুহূর্তের মধ্যে ৩০ টাকা কেজির লবণ ৪০ থেকে ৮০ টাকা কোথাও কোথাও ১০০ টাকায় বিক্রি শুরু করেন ব্যবসায়ীরা। খবর পয়ে ইউএনও বৈশাখী বড়–য়া বাজারে অভিযান পরিচালনা করে মদন সাহা ২ হাজার টাকা এবং খোরশেদ আলম নামে আরেক ব্যবসায়ীকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এ সময় সবাইকে গুজবে কান না দেয়ার জন্য বিভিন্ন বাজারে পথসভা করেন ইউএনও। অপরদিকে হাজীগঞ্জের গুজবের প্রভাব পড়ে চাঁদপুর জেলা শহরেও। অনেককে লাইন ধরে লবণ কিনতে দেখা যায়। তবে পুরুষের চেয়েও বোরকা পরিহিত মহিলারাই একেকজনে ৮ থেকে ১০ প্যাকেট লবন কিনে নিচ্ছে।

এদিকে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান চাঁদপুরের পাইকারি ব্যবসায়ীদেরকে নিয়ে বিকেলে মতবিনিময় সভা করেছেন। সেখানে তিনি লবণ নিয়ে কোন কারসাজি হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারি দেন।

জেলা প্রশাসক বিকেলে চাঁদপুর সদর উপজেলার কয়েকটি বাজার নিজেই মনিটরিং করেন। এ সময় ব্যবসায়ীদের গুজবে কান না দেয়ার জন্য সতর্ক করেন।

অপর দিকে জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজার থেকে হঠাৎই উধাও হয়ে যায় লবণ। বিকেলে বিভিন্ন বাজারে পুলিশ নামলে দোকানদাররা মজুদকৃত লবন ৩৫ টাকা দামে বিক্রয় শুরু করে।

ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম