হাইমচরে কোস্টগার্ডের অভিযানে বিপুল পরিমান কারেন্ট জাল ও ইলিশ জব্দ 

হাইমচর (চাঁদপুর):  চাঁদপুর হাইমচরে মেঘনায় মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে  বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড হাইমচর কন্টিনজেন্ট কমান্ডার পেটি অফিসার এম এমদাদুল হক এর নেতৃত্বে ও সিসি পেটি অফিসার এম নাসিরসহ অভিযান পরিচালনা করে ৩ লক্ষ ৭০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ৭৫ কেজি ইলিশ জব্দ করেন।
বুধবার ( ১২ অক্টোবর) রাতে অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে  ইলিশ সিকারের সময় হাইমচর কোস্টগার্ড আটক করতে সক্ষম হয়।
মা ইলিশ অভিযান ২০২২ সফল করবার চেষ্টায় ইলিশ সম্পদ রক্ষা ও বৃদ্বি  লক্কে দিবা রাত্রি অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান কন্টিনজেন্ট কমান্ডার।
তিনি বলেন, মেঘনা নদীতে অবৈধ ভাবে কারেন্ট জাল দিয়ে মাছ যাহাতে না সিকার করতে পরে সেই জন্য কোস্টগার্ড হাইমচরে দিন ও রাতে টহল কার্যক্রম অব্যাহত আছে। মেঘনা নদীর বিভিন্ন এলাকায় আখনের ঘাট, হরিনা ঘাট, আলুর বাজার , ঈশানবালা নীলকমল, মাঝির বাজার, হাইমচর বাজার ঘাট, তেলিরমোড় সাহেব বজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। আটককৃত জাল আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয় এবং মাছ বিভিন্ন মাদ্রাসা ও এতিমখানায় বিতরণ করা হয়।
হাইমচর কন্টিনজেন্ট কমান্ডার পেটি অফিসার এম এমদাদুল হক আরো বলেন, মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড ও প্রশাসন কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। যাতে কোনো জেলে জাল নিয়ে নদীতে নামতে না পারে সে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
মৎস্যজীবীসহ সকলের সহযোগিতা থাকবে বলে আশা করে জেলেদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন,  শুধুমাত্র সরকার ঘোষিত নিষিদ্ধ সময়ে ২৮ অক্টোবর পযর্ন্ত মা ইলিশ ধরা থেকে বিরত থাকেন। কোন জেলে যদি আমাদের হাতে ধরা পরে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানোগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। জেলে পাঠানো হবে। মা ইলিশকে ২২ দিন ডিম ছাডার সুযোগ দিন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন হাইমচর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসার মোঃ মাহবুব রশিদ, শাহারাস্তি মৎস্য অফিসার মোঃ ফারুক আহাম্মদসহ কোস্টগার্ডের সদস্যবৃন্দ।
ফম/এমএমএ/

মো. মহসিন মিয়া | ফোকাস মোহনা.কম