হঠাৎ করে লবনের দাম বেড়ে যাওয়ার দোকানে ক্রেতার উপচে পড়া ভিড়

চৌগাছা (যশোর): যশোরের চৌগাছায় মঙ্গলবার বিকালে লবণ নিয়ে রীতিমত হৈচৈ পড়ে গেছে। বিকাল তিন টার কিছু পরপরই বাজারে ছড়িয়ে পড়ে লবনের দাম বেড়ে গেছে। মুহুর্তের মধ্যে সাধারণ মানুষ লবন কিনতে দোকান গুলোতে হুমড়ি খেয়ে পড়ে। এ সময় এক একজন ক্রেতাকে ৩ থেকে ৫ কেজি পর্যন্ত লবন নিতে দেখা গেছে। এই সুযোগে অনেক খুচরা ব্যবসায়ী অধিক দামে লবন বিক্রি করেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। পেঁয়াজের ঝাঝ কাটতে না কাটতেই লবনের দাম বেড়ে যাওয়ার খবরে সাধারণ মানুষের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

বাজারে লবন কিনতে আসা জগদীশপুর গ্রামের শিহাব আলী বলেন, বিকালে খবর পাই লবনের দাম বেড়ে গেছে। খবর পেয়ে দ্রুত চৌগাছায় এসে ২ কেজি লবন কিনি। খোলা লবন ১৫ টাকার স্থলে ৩০ টাকা আর প্যাকেট লবন ৪০ টাকার জায়গায় ৬৫ টাকা কেজি দরে কিনতে হয়েছে। স্কুল শিক্ষক আজম আশরাফুল বলেন, লবন কিনতে যেয়ে প্যাকেট ও খোলা দুই লবনের দামই দোকানি বেশি চেয়ে বসে। এ সময় দোকানদারের সাথে রীতিমিত কথাকাটি হয় আমার। পরবর্তীতে জানতে পারি লবনের দাম বেড়ে গেছে। কিন্তু ১ দিনে কেজিতে ১৫ থেকে ২৫ টাকা বৃদ্ধি পাওয়া একটি অস্বাভাবিক ঘটনা।

উপজেলার পাতিবিলা বাজার থেকে জৈনক ব্যক্তি মোবাইল ফোনে জানান, খোলা লবণ সকালে ২০ টাকায় বিক্রি হয়েছে, আর বিকেলে সেই একই লবণ ৬০ থেকে ৬৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। চৌগাছা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারন সম্পাদক ইবাদত হোসেন বলেন, আমি শুনেছি দোকানে হঠাৎ করেই লবনের ক্রেতা বেড়ে গেছে। গুজবে ক্রেতার ভিড় বলে আমার মনে হচ্ছে। তবে আমার জানা মতে লবনের কোন দাম বাড়েনি আগের দামেই লবন বিক্রি হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুল ইসলাম বলেন, এটি একটি গুজব ছাড়া কিছুই নই। দেশে লবনের কোন ঘাটতি নেই। কোন ব্যবসায়ী অধিক দামে লবন বিক্রি করলে প্রমান পেলে ওই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

ফম/এমএমএ/

আব্দুল আলীম | ফোকাস মোহনা.কম