হংকংয়ের স্থানীয় ভোটে সাফল্য গণতন্ত্রকামীদের

ছবি: সংগ্রহিত

বুথের বাইরে লম্বা লাইনই ইঙ্গিতটা দিয়েছিল। হংকংয়ের স্থানীয় নির্বাচনে ব্যাপক সাফল্য পেলেন গণতন্ত্রকামী প্রতিনিধিরা। ৪৫২ আসনের ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিলের মধ্যে ৩৯০টিই এখন তাঁদের দখলে। অর্থাৎ ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিলে এখন কার্যত দশ শতাংশ প্রতিনিধিত্ব রইল বেজিংপন্থী নেতাদের। যাকে ‘দিন বদলের ইঙ্গিত’ বলেই ব্যাখ্যা করছেন অধিকাংশ হংকংবাসী।

গত পাঁচ মাসেরও বেশি সময় ধরে বিক্ষোভে উত্তাল স্বশাসিত এই এলাকা। বিতর্কিত প্রত্যার্পণ বিল প্রত্যাহারের দাবিতে যে গণআন্দোলন শুরু হয়েছিল, হংকং সরকার শেষমেশ সেই বিল আনুষ্ঠানিক ভাবে বাতিল করে দিলেও আরো বৃহত্তর আন্দোলনের দাবিতে এখনও নিয়মিত বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন এখানকার গণতন্ত্রকামী মানুষ। সেই বিক্ষোভের মূল দাবিই হল, বেজিং ঘনিষ্ঠ হংকং প্রশাসক ক্যারি ল্যামকে সরিয়ে স্বশাসিত এই এলাকায় চিনের আধিপত্য কমানো। ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিলের মতো সাধারণ নির্বাচনও এবার তাই রাজনৈতিক ভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছিল। শুধু চিন আর হংকংই নয়, প্রায় গোটা বিশ্বের সংবাদমাধ্যমের নজর ছিল এই স্থানীয় নির্বাচনে।

মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) সকালে ফলাফল ঘোষণার পরে মুখ খুলেছেন হংকংয়ের কার্যনির্বাহী প্রশাসক ক্যারি ল্যাম। তিনি বলেছেন, অনেকেই বলছেন এই ফল আসলে সরকারের প্রতি সাধারণ মানুষের অসন্তোষের প্রতীক। আমি একটা কথাই বলতে চাই, হংকংয়ের সাধারণ নাগরিকের মনের কথা এই সরকার মাথা নত করে শুনবে।
এই পরজায়ের জন্য তিনি কোনও অজুহাত খুঁজতে চান না বলেও জানিয়েছেন ল্যাম।

ফল ঘোষণা শুরু হয়ে গিয়েছিল সোমবার (২৫ নভেম্বর) মাঝ রাত থেকেই। আর প্রথম কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ছবিটা পরিষ্কার হয়ে যায়। এত দিন যে কাউন্সিল অবাধে দখলে রেখেছিলেন চিন ঘনিষ্ঠ প্রতিনিধিরা, এবার তাঁরাই প্রচুর ভোটে হেরে গিয়েছেন গণতন্ত্রকামী নেতাদের কাছে। সোমবার গভীর রাতেও ফল ঘোষণা কেন্দ্রের বাইরে গণতন্ত্রকামী মানুষের ঢল ছিল চোখে পড়ার মতো। যেখানেই বেজিংপন্থী প্রতিনিধিরা হেরেছেন, সেখানেই ‘হংকংকে স্বাধীন করো। বিপ্লব এখনই এর মতো স্লোগান উঠেছে।

ফম/শাপ/ 

আন্তজার্তিক ডেস্ক | ফোকাস মোহনা.কম