সবুর খানের ‘ওয়ার্ল্ড বুক অব রেকর্ডস’ পুরস্কার গ্রহণ

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ডিআইইউ) চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান ‘ওয়ার্ল্ড বুক অব রেকর্ডস’ এর পুরস্কার গ্রহণ করেছেন। তিনি চাঁদপুরের কৃতি সন্তান।

সোমবার (১০ অক্টোবর) ড্যাফোডিল স্মার্ট সিটিতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে জমকালো অনুষ্ঠানে তিনি এই পুরস্কার গ্রহণ করেন।

ওয়ার্ল্ড বুক অব রেকর্ডস হলো যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক একটি সংস্থা যা বিশ্বজুড়ে অসাধারণ অর্জনগুলিকে সার্টিফাই, যাচাই এবং রেকর্ড করে। এ বছর ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা এবং ড্যাফোডিল ফ্যামিলির চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান বাংলাদেশের শিক্ষা ও আইসিটি সেক্টরে অসামান্য পারফরম্যান্স এবং অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংস্থা ‘ওয়ার্ল্ড বুক অফ রেকর্ডস’ কর্তৃক সংবর্ধিত হয়েছেন এবং এ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

এ উপলক্ষে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ঢাকার আশুলিয়ায় ড্যাফোডিল স্মার্ট সিটিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক কনফারেন্স হলে ওয়ার্ল্ড বুক অফ রেকর্ডসের পুরস্কার গ্রহণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই’র সিনিয়র সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু। ওয়ার্ল্ড বুক অব রেকর্ডসের গ্লোবাল সভাপতি ড. দিবাকর সুকুল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ইভেন্টে যোগ দেন এবং ওয়ার্ল্ড বুক অব রেকর্ডসের বাংলাদেশ বিভাগের সভাপতি রওমান স্মিথা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ডক্টর এম লুৎফর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এস এম মাহাবুব উল হক মজুমদার, ড্যাফোডিল পরিবারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নুরুজ্জামান।-বাসস।

ফম/এমএমএ/

ফোকাস মোহনা.কম