লঞ্চ থেকে উদ্ধার তরুনীর লাশের পরিচয় দেড় বছরেও মিলেনি

ফাইল ছবি।
চাঁদপুর : চাঁদপুর-ঢাকা নৌ পথে চলাচলকারি যাত্রীবাহী লঞ্চ আব এ জমজমের দ্বিতীয় তলার স্টাফ কেবিন থেকে অজ্ঞাত তরুনীর উদ্ধার হওয়া লাশের পরিচয় দীর্ঘ দেড় বছরেও মিলেনি। প‌রিচয় না মেলায় পু‌লি‌শ তদন্ত কা‌জ আগাতে পারছে না। দীর্ঘ দেড় বছর অত‌বা‌হিত হ‌লেও তরুণীর খোঁ‌জে কেউ থানায় আসেননি।
২০২০ সালের ২২ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় চাঁদপুর লঞ্চঘাটে এমভি আব এ জমজম লঞ্চের ইঞ্জিন গ্রিজারদের ২৩৫নম্বর কেবিন থেকে অজ্ঞাত তরুণীর  লাশটি উদ্ধার করা হয়।
এই ঘটনার খবর শুনে সেদিন দুপুরে তৎকালীন সময়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) স্নিগ্ধা সরকার ঘটনাস্থল  পরিদর্শন করেন। যে  কক্ষটি থেকে তরুণীর লাশ উদ্ধার করা হয় সে কক্ষটি ছিল লঞ্চের গ্রিজার  সুজন মোল্লা, রাসেল খান ও মাসুম গাজী ব্যবহৃত।  লঞ্চ চালানোর কারণে তারা কেবিনটি যাত্রীদের কাছে ভাড়া দিতেন।
নৌ পুলিশ চাঁদপুর অঞ্চলের পুলিশ সুপার ( এসপি)  মোহাম্মদ কামরুজ্জামান এ বিষয়ে বলেন, আমরা যদি এ তরুণীর পরিচয় পেতাম, তাহলে মামলার তদন্তে আরো অগ্রগতি হত। গণ মাধ্যমে যদি বিষয়টি তুলে ধরা হয়, তাহলে হয়তো তরুণীর পরিচয় পাওয়া যেতে পারে।
চাঁদপুর নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান বলেন, মামলাটির তদন্ত চলছে। তবে পরিচয় না পাওয়ার কারণে তদন্তে অগ্রগতি হচ্ছে না। য‌দি কোন ব‌্যক্তি এ অজ্ঞাত তরুণীর প‌রিচয়  জেনে থাকেন তাহলে চাঁদপুর নৌ থানার এ মোবাই নম্বরে ০১৩২০১৬৪৫৪০ যোগাযোগ করবেন।
উ‌ল্লেখ‌্য, ঘটনার দিন এ লঞ্চটি দুপুর ১টায় চাঁদপুর ঘাট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও যেতে পারে নি। ৬শ’ টাকার বিনিময়ে কেবিনটি  যুবক ও যুবতীকে তারা  ভাড়া দিয়েছিল । চাবি না পাওয়ায় ও কেবিন বন্ধ থাকায়  বিষয়টি ঘাট সুপারভাইজার বিল্পব সরকার কে অবগত করলে নৌ থানা পুলিশকে বিষয়টি জানানো হলে  পুলিশ তাৎক্ষনিক আব এ জমজম লঞ্চের  দ্বিতীয় তলার স্টাফ কেবিনের তালা ভেঙে অচেনা তরুনীর লাশ দেখতে পায়। তৎকালীন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) স্নিগ্ধা সরকার দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন।  তখন  প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল  তার সাথে খারাপ আচরন করা হতে পারে। পরে তরুনীর  পায়জামার ফিতা গলায় পেচিয়ে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়েছে।
 সিআইডি এবং পিবিআই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে হত্যার রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চালায়।  কিন্তু দেড় বছর অতিবাহিত হয়ে গেলেও ওই তরুণীর পরিচয় মিলেনি।
ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম