যুদ্ধ জাহাজ ‘অদম্য’ এখন চাঁদপুরে

চাঁদপুর: বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) সশস্ত্র বাহিনী দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী সম্মিলিতভাবে মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে আক্রমণের সূচনা করে।

দিবস উপলক্ষ্যে দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ডাকাতিয়া নদীর পাড়ে চাঁদপুর পুরাতন লঞ্চঘাট বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধ জাহাজ ‘অদম্য’ সর্বসাধারণের দেখার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এনডিসি বিষয়টি ফোকাস মোহনাকে নিশ্চিত করেছেন। এছাড়াও দিবস উপলক্ষ্যে যুদ্ধ জাহাজটি সর্ব সাধারণের জন্য খোলা থাকবে মর্মে বুধবার বিকেলে শহরে মাইকিং করা হয়েছে।

বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যায়, এই যুদ্ধ জাহাজটি চট্টগ্রাম নৌ আঞ্চলিক বহরের একটি যুদ্ধ জাহাজ। খুলনা শিপইয়ার্ডে দেশের প্রথম ৫টি যুদ্ধ জাহাজ নির্মাণ করা হয়েছিল। তার একটি বানৌজা ‘অদম্য’। এটি ২০১৩ সালের ২৩ ডিসেম্বর কমিশনপ্রাপ্ত হয়। কমিশনপ্রাপ্তির পর থেকে নিরবচ্ছিন্নভাবে সমুদ্র ও সমুদ্র উপকূলে চোরাচালান, জলদস্যু দমন, অস্ত্র পাচার প্রতিরোধ, জাটকা নিধন বন্ধ, দুর্যোগপূর্ণ সময়ে সহায়তা ও ত্রাণ সহায়তার কাজ করে আসছে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় দ্রুত ত্রাণ পৌঁছানোর জন্যও এই জাহাজ ব্যবহার করা হয়।

এই ছাড়াও এই যুদ্ধ জাহাজে ৪ জন অফিসার ও ৬৫ জন নাবিক কাজ করেন। চট্টগ্রাম, খুলনা, চাঁদপুর, বরিশাল ও ঢাকায় প্রতিবছর ২৬ মার্চ, ২১ নভেম্বর ও ১৬ ডিসেম্বর- এই তিনদিন জনসাধারণ নৌবাহিনীর যুদ্ধ জাহাজ ঘুরে দেখার সুযোগ পান।

জাহাজটির দৈর্ঘ ৫১ মিটার ও প্রস্থ সাড়ে ৭ মিটার। এতে দু’টি বড় (৬৭ মি. মিটার) ও দু‘টি ছোট (২০ মি. মিটার) কামান রয়েছে। বড়টি দিয়ে সাড়ে ৬ মাইল দূরে কামানের গোলা ছোড়া যায়। অপরদিকে ছোট কামান দিয়ে ৩ মাইল দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানা সম্ভব।

ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম