মিলাদ দোয়া ও কেক কাটার মধ্য দিয়ে চাঁদপুর কণ্ঠের ২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

চাঁদপুর: ১৭ জুন ছিল চাঁদপুর কণ্ঠের ২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। আনন্দঘন এ দিনটি সংক্ষিপ্ত আয়োজনে উদ্যাপন করা হয়। পত্রিকা কার্যালয় শহরের স্ট্র্যান্ড রোডস্থ ডাঃ এমএ গফুর সাহেবের বিল্ডিংয়ে শুক্রবার  বিকেলে এ উপলক্ষে মিলাদ, দোয়া, কেক কাটা ও সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

দোয়া মুনাজাত শেষে পত্রিকার উপর সংক্ষিপ্ত স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক আলহাজ্ব অ্যাডঃ ইকবাল বিন বাশার ও প্রধান সম্পাদক কাজী শাহাদাত। আরো বক্তব্য রাখেন পত্রিকার সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলন এবং সাবেক নির্বাহী সম্পাদক আলহাজ্ব মির্জা জাকির।

ইকবাল বিন বাশার তাঁর বক্তব্যে বলেন, চাঁদপুর কণ্ঠ পত্রিকাটি যে নীতি এবং আদর্শকে সামনে রেখে পথচলা শুরু করেছে, সে নীতি এবং আদর্শের উপর এখনো অটল রয়েছে। এটাই পত্রিকার মালিক হিসেবে আমার সার্থকতা। এ পত্রিকাটি কখনো কোনো দলের বা কোনো ব্যক্তি, গোষ্ঠীর মুখপত্র হয়নি এটাই আমার আত্মতৃপ্তি। চাঁদপুর কণ্ঠ সবসময় লুটেরা, দুর্নীতিবাজ, দখলবাজের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিল এখনো আছে। যখনই তাদের বিরুদ্ধে চাঁদপুর কণ্ঠ পরিবার কলম ধরে, তখনই আমাদের বিরুদ্ধে নানা অপবাদ কুৎসা রটায় এবং হুমকি ধমকি দেয়। এসবে আমরা মোটেই ভীত নই, বিচলিত নই। সকল ষড়যন্ত্র বাধা অতিক্রম করে চাঁদপুর কণ্ঠ এগিয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ্। চাঁদপুর কণ্ঠ পাঠকপ্রিয়তা অর্জন করেছে এটাই আমাদের প্রাপ্তি। তিনি পত্রিকাটি প্রকাশের সময়কালের গুরুত্বপূর্ণ কিছু স্মৃতি তুলে ধরেন।

প্রধান সম্পাদক কাজী শাহাদাত তাঁর বক্তব্যে বলেন, এই পত্রিকাটির সাথে প্রকাশনার শুরু থেকে এখনো পর্যন্ত আছি। পত্রিকার মালিক আমাদের পরম শ্রদ্ধেয় ইকবাল বিন বাশার সাহেবের সাথে শুরুতেই আমাদের যে অঙ্গীকার ছিল, এখনো তা অটুট আছে। তিনি এ পর্যন্ত পত্রিকার উপর কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করেন নি। এটিকে কোনো দলের মুখপত্র বানান নি। সে জন্যে তাঁর প্রতি আমাদের অশেষ কৃতজ্ঞতা। আমাদের নিরপেক্ষতা এবং দুষ্ট দুরাচারদের প্রতি আপসহীনতার কারণে নানা সময় নানা প্রতিকূল পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। আল্লাহর অশেষ রহমত এবং পাঠকদের ভালোবাসায় সে সময়গুলো আমরা অতিক্রম করে আসছি। ইনশাআল্লাহ্ সামনেও পারবো। সে জন্যে সকলের দোয়া কামনা করছি।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন চাঁদপুর কণ্ঠের সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার মাওঃ আব্দুর রহমান গাজীর ছেলে হাফেজ মহিবুর রহমান মহিবুল্লাহ। মিলাদ, দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন মাওঃ আব্দুর রহমান গাজী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর কণ্ঠের বার্তা সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ, উপদেষ্টা ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া, চীফ রিপোর্টার বিমল চৌধুরী, ম্যানেজার সেলিম রেজা, বিশেষ প্রতিনিধি মিজানুর রহমান, চীফ ফটোগ্রাফার চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম, বিশেষ প্রতিনিধি সাইফুল আজম, ডাঃ মোজাম্মেল হক, সার্কুলেশন ম্যানেজার সোহাঈদ খান জিয়া, শহর প্রতিনিধি বাদল মজুমদার প্রমুখ।

ফম/এমএমএ/

ফোকাস মোহনা.কম