মতলব উত্তরে ২৪৫০ লিটার চোরাই ডিজেল’সহ আটক-২

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মেঘনা নদীর দশানী লঞ্চঘাট এলাকায় বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২ হাজার ৪৫০ লিটার চোরাই ডিজেল’সহ ২জনকে আটক করা করে।

আটককৃতরা হলো- উপজেলার দক্ষিণ দশানী গ্রামের বাচ্চু ছৈয়ালের ছেলে এবাদউল্লা (৩৮) ও মোহাম্মদ আলী সর্দারের ছেলে কবির হোসেন (৪০)।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন মৃধার নেতৃত্বে উপজেলার দশানী লঞ্চঘাট এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় মেঘনা নদীতে চলাচলকারী বিভিন্ন জাহাজ থেকে অবৈধভাবে ডিজেল চোরাই ২ হাজার ৪শ’ ৫০লিটার ডিজেল জব্দ করে। এ ঘটনায় তেল চুরি সিন্ডিকেটের ২ সদস্যকে আটক করে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মেঘনা নদীর কয়েকটি অংশে তেলবাহী ট্যাংকার ও জাহাজ অতিক্রমের সময় জাহাজ কর্মচারীদের যোগসাজশে স্থানীয় তেল চোরাকারবারি চক্র স্বল্প মূল্যে ভোজ্য ও জ্বালানি তেল নামিয়ে দীর্ঘদিন যাবত পাচার করে আসছে।

বছরের পর বছর ধরে তেলের চোরাকারবার চললেও কোনো প্রতিকার বা শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। প্রতিদিন সন্ধ্যা হলেই নদীর বুকে নোঙ্গর করা তেলের জাহাজ থেকে চোরাকারবারিদের তেল চুরির মহোৎসব শুরু হয়। চলে গভীর রাত পর্যন্ত। তেল চোরাকারবারিরা নদীর পাড়ে অবৈধ দোকান গড়ে তুলেছে। চোরাই তেল ওসব দোকান হয়ে পাইকারি ও খুচরা গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে যায়। ছোট দোকান, অয়েল ফিলিং স্টেশন, গাড়ির গ্যারেজ, বড় শিল্পকারখানাসহ বিভিন্ন জায়গাতেই ওই চোরাই তেল যায় বলে জানা গেছে।

মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাসির উদ্দিন মৃধা বলেন, মেঘনা নদীতে চলাচলকারি বিভিন্ন জাহাজ থেকে অবৈধ ভাবে তেল নামিয়ে ব্যবসা করে আসছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। এ উপজেলার মেঘনা নদীর তীর মোহনপুর, দশানী, বাহাদুরপুর, সটাকী’সহ কয়েকটি স্থানে এ কাজ হয় বলে জানতে পেরে রাতে অভিযানে নামি। অভিযানে প্রায় ২ হাজার ৪৫০ লিটার ডিজেল জব্দ করা হয়। এ সময় এ ঘটনার সাথে জড়িত ২জনকে আটক করা হয়।

ফম/এমএমএ/

আরাফাত আল-আমিন | ফোকাস মোহনা.কম