মতলব উত্তরে মুক্তিযোদ্ধাকে স্বস্ত্রীক মারধর : এলাকা তোলপাড়

মতলব উত্তর (চাঁদপুর): জাতির সূর্য সন্তান এক বীর মুক্তিযোদ্ধার উপর অতর্কিত হামলা দিয়ে ব্যাপক মারধর করেছে দুর্বিত্তরা। মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী এগিয়ে আসলে তিনিও ছাড় পান মারপিটের হাত থেকে। চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার উত্তর নাউরী গ্রামে গত ১৯ মে বিকালে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে আহতরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

মুক্তিযোদ্ধা সন্তান মাসুদুর রহমান টিপু বলেন, আমরা স্বপরিবারে ঢাকাতে থাকি। বাড়ি-ঘরের কাজ করার জন্য আমার বাবা ও মা বাড়িতে আসেন। প্রতিবেশী নুর মিয়া মিয়াজীর ছেলে আলম মিয়াজী, মৃত হাজিল মিয়াজীর ছেলে জাকির হোসেন আমার বাবাকে পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে হামলা করে। মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। আমার মা বিউটি রহমান (৫৮) এগিয়ে আসলে আলমের স্ত্রী রুনু বেগমসহ আরো কয়েক মিলে ব্যাপক মারধর করে। পরে তাদের ডাকচিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে। প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমার বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তারা কিভাবে একজন বয়োজ্যেষ্ঠ মুক্তিযোদ্ধাকে এভাবে নৃশংসভাবে মারতে পারে? মুলত আমাদের জায়গা থেকে উৎখাত করার লক্ষ্যেই এলাকার কোন এক প্রভাবশালী লোকের প্ররোচনায় আমার বাবা মায়ের উপর এই হামলা করেছে তারা। আমি থানায় মামলা করব। প্রশাসনের কাছে আমি সুষ্ঠু বিচার চাই।

এদিকে আলম ও জাকির মিয়াজীর সাথে কথা বলার চেস্টা করলে তাদের মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তাদের বাড়িতে খোঁজ করলেও পাওয়া যায় নি। তবে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে মারামারির ঘটনার পর থেকেই তারা বাড়িতে নাই।

ফম/এমএমএ/আরাফাত/

আরাফাত আল-আমিন | ফোকাস মোহনা.কম