বুড়িচংয়ে কিশোর গ্যাং কর্তৃক  হাসান মাস্টার উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন 

কুমিল্লা: কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলা সদর ইউনিয়ন এর  হরিপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের হাসান মাস্টার এর উপর শুক্রবার বিকাল স্থানীয় কিশোর গ্যাংরা  সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মারাত্মকভাবে ভাবে আহত করে ।
এ ঘটনায়  বুড়িচং থানায়  পাঁচজনকে আসামী করে অভিযোগ দায়ের করা হয়।শনিবার সকালে হরিপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক,  শিক্ষার্থীর ও স্থানীয় লোকজনের আয়োজনে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদ দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। 
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়- বুড়িচং হরিপুর পশ্চিম পাড়ার শাহজাহান এর ছেলে জুম্মন , হৃদয় ও শামসু মিয়ার ছেলে বিজয় সিএনজি গতিরোধ করে হামলা চালায়।
আহত হাসান মাস্টার জানান,আমি শুধু বলেছিলাম স্কুলে নতুন রং করা হয়েছে, বৃষ্টিতে কর্দমাক্ত মাঠে খেললে স্কুলের রং নষ্ট হয়ে যায়, শুকনো মাঠে খেললে বাধা নেই সারাদিন খেলিও । সাথে স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা জনাব জাহাঙ্গীর আলম মাস্টার ছিল ওদের মাঠ থেকে উঠে যেতে বলি , ওরা আমার সাথে ও জাহাঙ্গীর ভাই এর সাথে খারাপ ব্যবহার করে,  আমরা  শুধু তাদের মাঠ থেকে উঠে যেতে বলি ।
হাসান মাস্টার বলেন  আমি এই স্কুলে দীর্ঘদিন ধরি অফিস সহকারী ও কম্পিউটার অপারেটর এর দায়িত্বের  পাশাপাশি শ্রেনী কক্ষে পাঠদান করে আসছি এবং  দৈনিক একুশে বাংলা পএিকায়  লেখালেখি করি, স্কুলের সাথেই আমার নিজস্ব বাড়ী, তাদেরক বাঁধা প্রদানের ঘন্টা খানেকপর  মাগরিবের কিছু সময় আগে  আমি আমার স্ত্রী বাচ্চা দের নিয়ে  আমার শহরের বাসা কুমিল্লা যাওয়ার পথে হরিপুর পশ্চিম পাড়ার ব্রীজের উপর আসলে শাহজাহান এর ছেলে জুম্মন, হৃদয়, বিজয়, মোহন লাঠি রড দিয়ে আমার উপর হামলা করে । এতে আমি এবং আমার স্ত্রী শারীরিক ভাবে ক্ষত এবং লাঞ্চিত হই এবং আমার ছোট শিশু ভয় ও আতংকে চিৎকার শুরু করলে আশ পাশের মানুষ এসে আমাদের কে  রক্ষা করে, তাৎক্ষণিকভাবে বুড়িচং হাসপাতালে ভর্তি করে। আজ শনিবার হরিপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় এবং হরিপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-  ছাত্রী এবং শিক্ষকগন এই হামলার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন আয়োজন করে।বুড়িচং থানা পুলিশ আজ মোহন( ২০) পিতা মোহাম্মদ আলী নামে একজন আসামি কে গ্রেফতার করে কুমিল্লা চালান করে।
ফম/এমএমএ/

সংবাদদাতা | ফোকাস মোহনা.কম