বিজ্ঞান শিক্ষাকে সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দিতে হবে: শিক্ষামন্ত্রী

চাঁদপুরের ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বড় বিজ্ঞান উৎসব

চাঁদপুর: চাঁদপুরে দুইদিন ব্যাপী বিজ্ঞান উৎসব শেষ হয়েছে।  শুক্রবার (২ সেপ্টেস্বর)  দুপুরে চাঁদপুর হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় সাইন্স ক্লাব কর্তৃক আয়োজিত সাইন্স ফ্রিক ২.০ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেনন এবং বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপুমনিএমপি।
তিনি বক্তব্যে বলেন, বর্তমান যুগ বিজ্ঞান আর প্রযুক্তির যুগ। বিশ্বায়নের এ যুগে টিকে থাকতে হলে বিজ্ঞান শিক্ষাকে  সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দিতে হবে। শিক্ষার্থীদের জ্ঞানার্জনের জন্য প্রযুক্তির ব্যবহার সিক্ত হবে নিজেদেরকে বিজ্ঞানমনস্ক হিসেবে গড়ে তুলতে হলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিকল্প নেই তাই বিজ্ঞান চর্চা করতে হবে।
মন্ত্রী বলেন, হাসান আলী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাইন্স ক্লাব কর্তৃক এ আয়োজন আমাকে মুগ্ধ করেছে আমি মনে করি চাঁদপুরের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞান উৎসব এটি।
তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা শুধু দেশেই নয় বৈশ্বিক সমস্যা নিয়ে ভাবছে এবং সমাধানের উপায় খুঁজে বের করছে। তাদের স্মার্ট সিটি প্রজেক্টে খুবই আকর্ষণীয় হয়েছে। আগামিতে নিজেদের শহরগুলো আরো সুন্দর সুশৃঙ্খল হয় এবং পরিকল্পিতভাবে হয় সেখানে সুবিধা ঠিক মতন থাকে এবং তারা যখন বড় হবে এখন থেকেই চেষ্টা করবে তাদের এই চাঁদপুর শহরসহ আমাদের দেশের প্রতিটি শহর যেন আদর্শ শহর হয়। তাদের আরেকটি প্রজেক্ট রোবটটিক্সে দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রজেক্টে বিষয়টি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সবকিছু মিলে আমার কাছে এই বিজ্ঞান উৎসব অসাধারণ ভালো লেগেছে। এজন্য তিনি আয়োজকসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক অভিনন্দন জানান।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, তোমরাই দেশের ভবিষ্যৎ। তোমরাই বিজ্ঞান প্রযুক্তি দিয়ে মানবিকতা আর সৃজনশীলতা দিয়ে এ দেশকে গড়ে তুলবে। এ দেশ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা হবে। এই বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা যে উন্নত সমৃদ্ধ
সুখী শান্তিময় বাংলাদেশের যে রূপকল্প তিনি দিয়েছেন ২০৪১ সালের। তা করবার মূল কারিগর তোমরাই এবং এটি করতে হলে আমাদের মূল হাতিয়ার শিক্ষা এবং সেই জায়গায় তোমাদের পাশে আমি আছি। এজন্য নতুন শিক্ষাক্রমে তোমাদের নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। সেখানে শিক্ষাটা হবে আনন্দময়। এই যে আজকে বিজ্ঞান উৎসব হচ্ছে। এই বিজ্ঞান চর্চাটাও তোমরা আনন্দময় করে নিয়েছো। সাইন্স ক্লাব সাইন্স ফেস্ট করে নিজেদেরকে বিজ্ঞান শিক্ষাকে আনন্দময় করে তুলেছে। বিজ্ঞান শিক্ষা দিয়ে জীবনকে উন্নত করছে।
চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ বিপিএম বার।
অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডঃ মুজিবুর রহমান ভূঁইয়া, জেলা শিক্ষা অফিসার প্রাণ কৃষ্ণ দেবনাথ।
আরো উপস্থিত ছিলেন হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ কামারুজ্জামান মজুমদার, আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট সাইফুদ্দিন বাবু সহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থী বৃন্দ।
শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখে হাসান আলী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাইন্স ক্লাব কমিটির সভাপতি আশরাফ উদ্দিন শাহান। অনুষ্ঠান
উপস্থাপনা করেন বিদ্যালয়ের সায়েন্স কমিটির নির্বাহী সদস্য আবিব মুনতাসির।
২০ এর অধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৯২টি প্রজেক্ট এ বিজ্ঞান উৎসবে উপস্থাপন করা হয়। মূলত চাঁদপুরের শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান বিষয়ক জ্ঞান আরো বৃদ্ধি ও বিজ্ঞান চর্চায় উদ্বুদ্ধ করার জন্য তাদের এই আয়োজন বলে সাইন্স ক্লাব কমিটির সভাপতি জানিয়েছেন।
এটি চাঁদপুরের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় সাইন্স ফেস্ট।দুই দিনের এই মেলায় প্রায় ৪ হাজার শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।
১ সেপ্টেম্বর দুইদিন ব্যাপি এই  বিজ্ঞান উৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন চাঁদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক অসিত বরণ দাস। এসময় উপস্থিত ছিলেন কলেজের সকল শিক্ষকবৃন্দ।
ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম