বিজিএফ চাল না পেয়ে জেলেদের বিক্ষোভ

চাঁদপুর : চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনা নদীর অভয়াশ্রম এলাকায় মা ইলিশ ধরা থেকে বিরত থাকা জেলেদের খাদ্য সহায়তা (বিজিএফ) চাল না পেয়ে বিক্ষোভ করেছে।

বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে সদর উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের জেলেরা পরিষদের সামনে এই বিক্ষোভ করে। এই ইউনিয়নের ১ হাজার ৮শ’ ৬৭জন জেলেকে ২৫ কেজি করে চাল বরাদ্দ দিয়েছে সরকার।

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটওয়ারী ও ইউপি সদস্যরা বুধবার (১৯ অক্টোবর) এবং বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) দুই দিন সকাল ৭টা থেকে দুপুর পর্যন্ত লাইনে দাঁড়িয়ে রাখে জেলেদেরকে। ইউনিয়ন পরিষদের গোডাউনে চাল সংরক্ষিত থাকলেও চাল না দেয়ায় তারা চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে বিক্ষোভ করে।

বিক্ষোভকারী জেলেরা অভিযোগ করে বলেন, আমাদেরকে চেয়ারম্যান বলেছে চাল দিবে। তাই আমরা সকাল ৭ টায় এসে লাইনে দাঁড়িয়েছি। এখন দুপুর হয়ে গেছে অথচ আমাদেরকে চলে যেতে বলে। কালকেও আমরা এসে দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে ছিলাম। আমরা গরীব মানুষ। আমাদের চাল আমাদের দিয়ে দিতে বলেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চান্দ্রা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এক নেতা জানান, আমাদের ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ জেলে প্রতি ১ কেজি করে চাল দাবী করেছে। তারপর আবার বুঝেনতো ভাই মেম্বাররা আছে। এছাড়াও অন্যান্য আরো বিষয় আছে, এজন্যই চাল দিতে দেরি হচ্ছে।

ইউনিয়ন ছাত্র লীগের আরেক নেতা জানান, আমাদের একটাই দাবী জেলেদের চাল ২৫ কেজি। তাদেরকে ২৫ কেজিই দিতে হবে। কোন ভাবেই কম দিতে পারবে না।

ট্যাগ অফিসার তাপস চন্দ্র দাস বলেন, আমি বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কে জানিয়েছি।

এক কেজি করে চাল দাবীর বিষয়ে বক্তব্য দিতে রাজী হননি চান্দ্রা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটওয়ারী। তিনি বলেন, বুঝেনইতো সবকিছু প্রকাশ্যে বলা যায় না। আমি চাঁদপুরে যাচ্ছি। পরে এই বিষয়ে জানাব।

এদিকে এই বিষয়ে বক্তব্যে নেওয়ার জন্য চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) হেলাল উদ্দিন চৌধুরীকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেনি।

বিষয়টি নিয়ে চাঁদপুর জেলা মৎস কর্মকর্তা মো. গোলাম মেহেদী হাসান বলেন, আমি বিষয়টি এইমাত্র জানলাম। দেখি খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নিব।

ফম/এমএমএ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম