বাংলাদেশকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যেতে ‘২০৪১ সৈনিকরা’ প্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী

ডিজিটাল বাংলা‌দেশ আমা‌দের জন‌্য আর্শীবাদ: অঞ্জনা খান মজলিশ

চাঁদপুর: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সফটওয়্যার তৈরীতে ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের সাফল্যে আশা ব্যক্ত করে বলেছেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জ্ঞান নিয়ে ‘২০৪১ এর সৈনিকরা’ প্রস্তুত।

তিনি উল্লেখ করেন, তাঁর সরকার ডিজিটাল ডিভাইস রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের ক্ষেত্রে তৈরি পোশাক খাতকে ছাড়িয়ে যাওয়ার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি আজকে থেকে বলতে পারি আর কোন দুশ্চিন্তা নাই। প্রযুক্তি শিক্ষায় এবং জ্ঞান ভিত্তিক যে সমাজ আমরা গড়তে চাই- আমাদের দেশটা সে পথে অনেকদূর এগিয়ে গেছে এবং ইনশাল্লাহ অবশ্যই বাংলাদেশ ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তোলার সৈনিকরা প্রস্তুত হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবিবার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস-২০২১’ উদযাপন এবং ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার’ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন।

তিনি গণভবন থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আইসিটি মন্ত্রণালয় আয়োজিত মূল অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের সাহায্যে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন। ভার্চুয়ালি আইসিটি মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন প্রকল্পেরও উদ্বোধন করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকে বাংলাদেশকে আমরা এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। অর্থাৎ রূপকল্প ২০২১ এর যে চিন্তা চেতনাগুলো ছিল, লক্ষ্যগুলো ছিল সে লক্ষ্য আমরা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। আমাদের ভবিষ্যতে এগিয়ে যেতে হবে। আর সেই ভবিষ্যতের জন্য আমাদের যারা নতুন প্রজন্ম তাদেরকেও প্রস্তুতি নিতে হবে।

অনুষ্ঠানে অ্যাপ বানিয়ে ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা পুরস্কার পাওয়ায় আনন্দ প্রকাশ করে শেখ হাসিনা বলেন,আমাদের দেশের ছোট ছোট ছেলে মেয়েরাও কিন্তু তাদের উদ্ভাবনী শক্তি দিয়ে অনেক কিছু আজকে তৈরি করছে। বাংলাদেশের জনগণ সেই সেবাটা পাবে,পাচ্ছে এবং তাদের সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার একটা সুযোগ হচ্ছে।

তিনি বলেন, আজকের শিশুদের মেধা ও মনন বিকাশে তাঁর সরকার যে সুযোগ করে দিয়েছে, ডিজিটাল বাংলাদেশ না হলে তা সম্ভব ছিলনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ছেলে-মেয়েদের মধ্যে যে মেধা রয়েছে সেটাকে বের করে নিয়ে আসা এবং সেটাকে দেশের কাজে লাগানোই তাঁর সরকারের লক্ষ্য । সেক্ষেত্রে সরকার সত্যিই অনেক বেশি সাফল্য অর্জন করতে পেরেছে।

অনুষ্ঠানে আইসিটি খাতে অবদান রাখার জন্য ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার’ প্রদান করা হয়। সরকারি এবং বেসরকারি পর্যায়ে আলাদাভাবে তিনটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেওয়া হয়। জাতীয় পর্যায়ে এবং স্থানীয় পর্যায়ে মোট চব্বিশটি পুরস্কার প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। পুরস্কার হিসেবে ক্রেষ্ট, সম্মাননা সনদ এবং নগদ অর্থের চেক বিজয়ীদের হাতে তুলে দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতার বিজয়ীদেরকেও পুরস্কৃত করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ম্যানেজমেন্ট সিষ্টেম সুরক্ষা’র (সুরক্ষা অ্যাপ) প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রে সেরা দলের দলনেতা হিসেবে পুরস্কার গ্রহণ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর বক্ত‌ব্যের প‌রে চাঁদপুর‌ জেলা প্রশাস‌নের আ‌য়োজ‌নে তথ‌্য ও যোগা‌যোগ প্রযু‌ক্তি বিভা‌গের সহ‌যো‌গিতায়  ‌ডি‌জিটাল বাংলা‌দেশ দিবস উপল‌ক্ষে আ‌লোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হ‌য়ে‌ছে।

চাঁদপুর জেলা প্রশাসক স‌ম্মেলন ক‌ক্ষে প্রধান অ‌তিথর বক্তব‌্য রা‌খেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজ‌লিশ। ডিজিটাল বাংলা‌দেশ আমা‌দের জন‌্য আর্শীবাদ। প্রাধানমন্ত্রী ও উনার পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় ডি‌জিটাল বাংলা‌দে‌শের বিষ‌য়ে না ভাব‌তেন তাহ‌লে আমরা‌ বিশ্ব থে‌কে পি‌ছি‌য়ে যেতাম। বর্তমা‌নে সরকা‌রি বেসরকা‌রি দপ্ত‌রের সকল কাজ ডি‌জিটাই‌লেশন করা হ‌য়ে‌ছে। আজ‌কের দি‌নে যাদুর আয়না ‌থেকে কম নয় মোবাইল ফোন‌। মোবাইল সে‌টের মাধ‌্যমে সকল কিছুই করা সম্ভব।

অ‌তি‌রিক্ত জেলা প্রশাসক (‌শিক্ষা ও আই‌সি‌ট) মোছাম্মৎ রা‌শেদা আক্তার এর  সঞ্চালনায় আরো বক্তব‌্য রা‌খেন অ‌তি‌রিক্ত পু‌লিশ সুপার সুদীপ্ত রায়, নৌ পুলি‌শের অ‌তি‌রিক্ত পু‌লিশ সুপার মোহাম্মদ বেলা‌য়েত, জেলা আওয়ামী লী‌গের সভাপ‌তি না‌ছির উ‌দ্দিন আহ‌মেদ, সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, সি‌ভিল সার্জন শাহাদাৎ হো‌সেন, স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত নারী মু‌ক্তি‌যোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, চেম্বার অব কমা‌র্সের সভাপ‌তি জাহাঙ্গীর হো‌সেন আখন্দ, চাঁদপুর প্রেসক্লা‌বের ইকবাল হা‌সেন পাটওয়ারী প্রমূখ।

সভায় ‌জেলা প‌রিষ‌দের প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ২৫০ শয‌্যা বি‌শিষ্ট সরকা‌রি জেনা‌রেল হাসপতা‌লের তত্ত্ববধায়ক ডা. এ কে এম মাহবুবুর রহমান, এনএসআই এর উপ প‌রিচালক শাহ মো আরমান, সদর উপ‌জেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সান‌জিদা শাহনাজ, হাজীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহবুবুল আলম লিপন, চাঁদপু‌র কোস্টগা‌র্ডের নবাগত স্টেশন কমান্ডার মাশাদ উ‌দ্দিন না‌হিয়ান, ইসলা‌মি ফাউ‌ন্ডেশ‌নের উপ প‌রিচালক মোহাম্মদ খ‌লিলুর রহমান উপ‌স্থিত ছি‌লেন।

অনলাইন ডি‌জিটাল উপস্থাপ‌ন এর উপ‌রে প্রতি‌যো‌গিতায় ৬জন বিজয়ী‌দের মা‌ঝে পুরষ্কার ও সনদপত্র প্রদান ক‌রেন প্রধান অ‌তিাথসহ আম‌ন্ত্রিত অ‌তি‌থিবৃন্দ।

ফম/এমএমএ/