বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে শুরু হচ্ছে চতুরঙ্গ ১৪তম জাতীয় ইলিশ উৎসব

চাঁদপুর: জাটকা এবং মা- ইলিশের পাশে, আমরা আছি প্রতিটি নিঃশ্বাসে এ স্লোগান নিয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২০ সেপ্টেস্বর জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হতে যাচ্ছে চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন আয়োজিত ১৪তম জাতীয় ইলিশ উৎসব।

উৎসবকে ঘিরে বুধবার (০৭ সেপ্টেম্বর) ইলিশ উৎসবের মহাসচিব হারুন আল রশিদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেইসবুক) এ চ’ড়ান্ত কর্মসূচির ঘোষনা করা হয়।

তথ্যে আরো জানা যায় ৫দিনব্যাপী উৎসবের মৌলিক কর্মসূচি, অংশগ্রহণকারী স্থানীয় ও অতিথি সংগঠন এবং অতিথি শিল্পীদের তালিকা। এছাড়া উপদেষ্টা মন্ডলীসহ নির্বাহী পরিষদের কমিটির তালিকাও প্রকাশ করা হয়সহ অনুষ্ঠানের নানা কর্মসূচি সর্ম্পকেও জানা যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি।

৫ দিনব্যাপী মৌলিক কর্মসুচির আংশ হিসেবে সম্মাননা প্রদান করা হবে। সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন: যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ ওয়াদুদ, রেনেসাঁ ব্যান্ড এর গীটারিস্ট রেজাউর রহমান, নারায়ণগঞ্জ এর সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব ভবানী শংকর রায়, ঢাকা এর সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব ইসলাম উদ্দিন বাবুল, বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) এর সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব অনুপম বিশ্বাস, গাজীপুর এর সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব শামীমা ফেরদৌসী, নারী উদ্যোক্তা আমরা অলোকিত নারীর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রেসিডেন্ট শারমিন আক্তার জুঁই।

এছাড়াও মরণোত্তর সন্মাননা প্রদান করা হবে। মরনোত্তর সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন: চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মরহুম ইয়াহিয়া কিরন, চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাবেক পরিচালক ( সংগীত) তাহমিনা হারুন, চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মাসুদুর রহমান শিপু,

১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কর্মসূচি হচ্ছে পর্যায়ক্রমে:

শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে বিকেল ৪ টাঃ-সেরা গানবাজ প্রতিযোগিতা (৮ম হতে মাস্টার্স, বাছাই পর্ব), বিকেল ৫টায় বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদ চাঁদপুর জেলা শাখার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সাড়ে ৫টায় মুক্তভাবনা ,বিষয়: জাটকা সংরক্ষণ ও মা- ইলিশ রক্ষার মৌসুমে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেনী কক্ষে ছাত্র/ছাত্রীদের মাঝে সচেতন হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরলে, আরো ব্যাপক জনসচেতনতার সৃষ্টি হবে।

মুক্তভাবনায় অংশ নেবেন চাঁদপুর সরকারি কলেজ এর অধ্যক্ষ অসিত বরন দাস, পুরান বাজার ডিগ্রী কলেজ এর অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদার, চাঁদপুর সরকারি কলেজ এর অধ্যাপক মোঃ আলমগীর হোসেন বাহার, রেলওয়ে কিন্ডারগার্টেন এর অধ্যক্ষ মাহমুদা খানম, বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদ এর সভাপতি মুক্তা পীযূষ ও চিকিৎসক ও সমাজ কর্মী ডা. রাশেদা হাসান।

সন্ধ্যা ৬-১৫ মিনিটে সোমা দত্তের পরিচালনায় নৃত্যধারা চাঁদপুরের নৃত্যানুষ্ঠান

সন্ধ্যা ৬-৪৫ মিনিটে গোলটেবিল বৈঠক, বিষয়ঃ-ইলিশ আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির সত্যিকারের ধারক।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধক গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুমনি এম পি, আলোচক জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ বিপিএম (বার), জেলা মৎস কর্মকর্তা মো. গোলাম মেহেদী হাসান।

গোল টেবিল বৈঠকে চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন এর চেয়ারম্যান অ্যাড. বিনয় ভূষন মজুমদার এর সভাপতিত্বে স্বগত বক্তব্য রাখবেন ইয়র্ক ফ্যাশন, বিসিক চাঁদপুর এর চেয়ারম্যান মোঃ সেলিম খান
আরোচনা শেষে বয়াতি ঢাকার পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হবে। শিল্পীরা হলেন: মোঃ সুলতান মাহমুদ, গোলাম পান্জাতন, সঞ্জয় দত্ত,ফাহিমা আহমেদ শিফা, সুমন বড়ুয়া, মোঃ মনসুর দেওয়ান, ভূঁইয়া সাজিদা সোহা,এম আর মানিক ও ইয়াকুব কমল।

উৎসবের ২য় দিন শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টায় একইস্থানে সেরা নাচিয়া প্রতিযোগিতা (৮ম শ্রেনী হতে মাস্টার্স, বাছাই পর্ব)
বিকেল ৫ টায় সংসদীয় বিতর্ক, বিষয়ঃ- এ সংসদ মনে করে ইলিশ কুটনীতির মাধ্যমে বাংলাদেশের তিস্তার পানি আদায় করা সম্ভব।
সরকারী দলঃ -চাঁদপুর সরকারি কলেজ (ক), বিরোধী দলঃ- চাঁদপুর সরকারি কলেজ (খ)।

স্পিকার থাকবেন চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন এর উপদেষ্টা ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া।
সন্ধ্যা ৫-৪৫ মিঃ-রংধনু সৃজনশীল নৃত্য সংগঠনের নৃত্যানুষ্ঠান, সন্ধ্যা ৬-১৫ মিঃ- সুলতানা সেতুর পরিচালনায় স্বপ্নকুঁড়ি সাংস্কৃতিক সংগঠনের নৃত্যানুষ্ঠান।

সন্ধ্যা ৬-৪৫-মিনিটে-গোল টেবিল বৈঠক। বিষয়ঃ-ইলিশ জেলেদের সচেতনতাই ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধির মূল শক্তি।

আলোচক হিসেবে থাকবেন, পাওয়ার সেল,বাংলাদেশ এর মহাপরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডঃ জাহিদুল ইসলাম রোমান, যুবনেতা ও সংস্কৃতিসেবী চাঁদপুরের মাহফুজুর রহমান টুটুল

১৪ তম জাতীয় ইলিশ উৎসবের আহবায়ক কাজী শাহাদাত এর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন
উপদেষ্টা পরেশ মালাকার।

আলোচনা সভা শেষে ইউডা ইউনিভার্সিটি ঢাকার পরিবেশনায় মোঃ মেহেদী হাসান, অনুপম চক্রবর্তী, নুসরাত সুমী,শাহনাজ আকতার, সজল দাস, শামামা তাহমিদ ও ফরহাদ হোসাইনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

৩য় দিন রবিার (১৮ সেপ্টেম্বর) জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে বিকাল ৪ টায় সেরা গানবাজদের চুড়ান্ত প্রতিযোগিতা।
বিকেল ৫ টায় ফারাবী রহমান জুয়েলের পরিচালনায় প্রতিভা সাংস্কৃতিক সংগঠনের নৃত্যানুষ্ঠান

বিকেল সাড়ে ৫টায় মুক্ত ভাবনা। বিষয়ঃ-জাটকা ও মা ইলিশ রক্ষায় নৌ-পুলিশের ভূমিকাই সবচেয়ে বেশি মুখ্য।

অংশ নেবেঃ-গিয়াস উদ্দিন মিলনের সভাপ্রধানে ও রিয়াদ ফেরদৌসের সঞ্চালনায় চাঁদপুর প্রেসক্লাবের আলোচকগন

সন্ধ্যা ৬ টায় নারায়ণগঞ্জ হাওয়াইয়ান গীটার পরিষদের অংকন রানা,আব্দুর রউফ, মোঃ শরিফুর রহমান জুয়েল, শ্রাবনী দত্ত জয়া ও সফিউল্লাহ খোকনের গীটার সন্ধ্যা।

এরপরে সন্ধ্যা ৬-৪৫ মিনিটে গোল টেবিল বৈঠক। বিষয়ঃ-ইলিশের ডিম সংরক্ষণ ও বিক্রয়কে কঠিন শাস্তিযোগ্য আইনের আওতায় আনা এখন সময়ের গণদাবী।

এতে আলোচক হিসেবে থাকবেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান, চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন এর উপদেষ্টা রোটাঃ মোঃ শবে- বরাত, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট চাঁদপুর এর সভাপতি তপন সরকার।
চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন এর উপদেষ্টা মোঃ জসীম উদ্দিন শেখ এর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন চাঁদপুর সাংস্কৃতিক চর্চাকেন্দ্রের সভাপতি শহীদ পাটোয়ারী।

এরপরে পুনম মিত্র, সাধনা সরকার, অর্নব আব্বাসের সংগীতানুষ্ঠান ও রুমা সরকারের পরিচালনায় নৃত্যাঙ্গন চাঁদপুরের নৃত্যানুষ্ঠান।

৪র্থ দিনে সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) একইস্থানে বিকেল ৪টায় সেরা নাচিয়ে চুড়ান্ত প্রতিযোগিতা।
বিকেল ৫টায় মুক্ত ভাবনা। বিষয়ঃ জাটকা ও মা ইলিশ সংরক্ষণের মৌসুমে সকল মাছ ধরার নৌকা প্রশাসনের হেফাজতে রাখা জরুরি।

এতে অংশ নেবেঃ-আল ইমরান শোভনের সভাপ্রধানে ও কাদের পলাশের সঞ্চালনায় চাঁদপুর টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের আলোচকগন।

পরে বিকেল ৫-৪৫ মিঃ-শুভ দাসের পরিচালনায় লতিকা নৃত্যালয় লক্ষীপুর জেলার নৃত্যানুষ্ঠান।

সন্ধ্যা ৬-১৫ মিঃ-বিশ্বনাথ দাসের পরিচালনায় উদয়ন সংগীত বিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
সন্ধ্যা ৭ টাঃ-গোলটেবিল বৈঠক। বিষয়ঃ-সকল নিবন্ধনকৃত জেলেদের জীবন বীমার আওতায় আনা জরুরি

এতে আলোচক হিসেবে থাকবেন – মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ এর চেয়্যারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ কুদ্দুছ, ত্রিপুরা,ভারতের স্যন্দন পত্রিকার ডিরেক্টর অরিন্দম দে, ত্রিপুরার সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত অমিত ভৌমিক।

চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন এর উপদেষ্টা মোঃ মহসীন পাঠানের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন ১৪ তম জাতীয় ইলিশ উৎসবের সচিব রোটাঃ তোফায়েল আহম্মেদ শেখ

এরপরে রাত ৮টায় বিশিষ্ট ত্রিপুরা,ভারতের আবৃত্তিশিল্পী শাওলী রায় আবৃত্তি পরিবেশন এবং শিপ্রা মজুমদারের পরিচালনায়
অগ্নিবীণা সাংস্কৃতিক সংগঠনের নৃত্যানুষ্ঠান, রঙ্গের ঢোল বাংলা ব্যান্ডের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

সমাপনি দিনে মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪ টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে চতুরঙ্গের গানবাজদের পরিবেশনা।
বিকেল সাড়ে ৪টায় “আমরা আলোকিত নারী”সরাসরি ইলিশ রেসিপি প্রদর্শন।

বিকেল ৫ টায় দীপদত্ত আকাশ ও কেয়া সিনহার পরিচালনায় শ্রীমঙ্গল নৃত্যালয় একাডেমির নৃত্যানুষ্ঠান।
বিকেল সাড়ে ৫টায় অনিতা কর্মকারের পরিচালনায় সুরধ্বনি একাডেমি চাঁদপুরের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

পরে সন্ধ্যা ৬-১৫ মিনিটে মুক্ত ভাবনা। বিষয়ঃ-জেলেদের জীবনমান ও ইলিশ রক্ষায় প্রান্তিকজেলে ও মৎস্যজীবী নেতাদের ভাবনা শীর্ষক আলোচনা।

এতে অংশ নেবেনঃ বীর মুক্তিযোদ্ধা অজিত সাহা, গণমাধ্যমে কর্মী রাশেদ শাহরিয়ার পলাশ, মৎস্যজীবী নেতা আঃ মালেক দেওয়ান, মানিক দেওয়ান, শাহ আলম মল্লিক, তছলিম বেপারী ও গণমাধ্যম কর্মী ডা. প্রভাষক শেখ মহসীন।

সন্ধ্যা ৭ টায় গোলটেবিল বৈঠক। বিষয়ঃ-আইনের প্রয়োগ নয়, ব্যাপক জনসচেতনতাই মা ইলিশ রক্ষা করতে পারে।

এতে আলোচক হিসেবে থাকবেন জেলা পরিষদেন প্রশাসক আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও অর্থ) সুদীপ্ত রায়, নার্গিস ফুড প্যাভিলিয়ন চেয়ারম্যান জাকির হোসেন প্রধানিয়া চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন এর উপদেষ্টা রোটাঃ মনিরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন উপদেষ্টা ডাঃ মাসুদ হাসান।

এরপরে রাত ৭-৪৫মিনিটে চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের সংগীতানুষ্ঠান ও মাহফুজ কাদরীর পরিচালনায় কাদরী ডান্স ট্রুপ ঢাকা, কোলকাতার অতিথি শিল্পী সুমন মন্ডলের নৃত্যানুষ্ঠান

চতুরঙ্গের গৌরবের ৪০ বছরে পদার্পন (১৫ মে,১৯৮৩ হতে ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ) চতুরঙ্গ পরিবারের চতুরঙ্গ সংগঠন উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ ওয়াদুদ, লেখক ও সাংবাদিক কাজী শাহাদাত, বীর মুক্তিযোদ্ধা অজিত সাহা, শিক্ষাবীদ মোঃ আলমগীর হোসেন বাহার, ইয়র্ক ফ্যাশন এর চেয়ারম্যান সেলিম খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মহসীন পাঠান, স্বর্নপদক প্রাপ্ত সমবায়ী মোঃ জসীম উদ্দিন শেখ, লেখক ও ছড়াকার ডাঃ পীযুষ কান্তি বড়ুয়া, সাংস্কৃতিক সংগঠক শহীদ পাটোয়ারী, সংস্কৃতিসেবী রোটাঃ মনিরুল ইসলাম, সংস্কৃতিসেবী রোটাঃ মোঃ শবে-বরাত, সাংস্কৃতিক সংগঠক তপন সরকার, সংস্কৃতিসেবী রোটাঃ তোফায়েল আহম্মদ শেখ, সংস্কৃতিসেবী ডাঃ মাসুদ হাসানু, সংস্কৃতিসেবী পরেশ মালাকার ও সাংস্কৃতিক সংগঠনক অ্যাডঃ কালাম সরকার।

নির্বাহী পরিষদের মধ্যে রয়েছেন: চেয়ারম্যানঃ অ্যাড. বিনয় ভূষন মজুমদার, ভাইস চেয়ারম্যানঃ কৃষ্ণা সাহা, ভাইস চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জনু, ভাইস চেয়ারম্যানঃ সাধনা সরকার, মহাসচিবঃ হারুন আল রশীদ, যুগ্ম মহাসচিবঃ মৃনাল সরকার, যুগ্ম মহাসচিবঃ তামীম আহমেদ সুমন, পরিচালক(সংগীত)অনিতা কর্মকার, পরিচালক(অর্থ) জসীম মেহেদী, পরিচালক (চিত্রকলা) মনির হোসেন মান্না, পরিচালক ( প্রকাশনা) মানিক দাস, পরিচালক( অনুষ্ঠান) শুভ্র রক্ষীত, পরিচালক (নাট্যকলা) মোঃ রাজীব চৌধুরী, পরিচালক ( সেমিনার) মেহেদী হাসান জীবন, পরিচালক(প্রচার) এম এইচ বাতেন, পরিচালক (সম্প্রচার) শাহরিয়া পলাশ ও পরিচালক( নৃত্য) রাশেদুল রাব্বী।

আজীবন সদস্যরা হলেন: মির্জা জাকির, রাশেদ শাহরিয়ার পলাশ, এম আহসান উল্লাহ, জি এম শাহীন, রাজন চন্দ্র দে, দিদারুল আলম চৌধুরী, মাহবুবুর রহমান সুমন, ডাঃ প্রভাষক শেখ মহসিন, মোবারক হোসেন শিকদার, উজ্জ্বল হোসাইন, ভিভিয়ান ঘোষ, শারমিন আক্তার জুঁই, সুমনা বেগম সুমি, নাজনীন আকতার, মোহাম্মদ কালাম, এম আর ইসলাম বাবু, জি এম লিটন, এইচ এম জাকির।

সাংস্কৃতিক পরিষদের মধ্যে রয়েছেন: ইতু চক্রবর্তী, খোকন দাস, পরিমল দাস নুপুর, আফসার বাবু, আফজাল রশীদ শান্তু, অনির্বান সাহা, ফয়সাল রশীদ শাওন, এ আর আজিজ, রাজীব সাহা, প্লাবন ভট্রাচার্য, আরিফ খান, নোমান রেজা রিয়াদ, তন্ময়ী রক্ষিত, অনিক নন্দী, মোহাম্মদ মামুন, অর্পিতা ঘোষ রক্ষিত, মোনায়েম হোসেন অন্তু, জি এম রহমান, জয়ন্তী পাল, মুন্না ঘোষ ও শম্পা খান।

নৃত্য পরিষদদের মধ্যে রয়েছেন: রিপন সরকার, সাজাহান খান, বাপ্পী চৌধুরী, মোহাম্মদ মোবারক, রোমানা আকতার, আহসান খান জুয়েল, রফিকুল রাজু, তাসনিম রুবা, ইসরাত প্রীতি, নাজনীন মুন্নী, কথা পাল, তনুশ্রী দাশ, জান্নাতুল ফেরদৌস সাদিয়া, নাদিয়া আক্তার ইমা, আমিন হোসাইন সোহান, মোঃ পাবেল বেপারী, মোঃ সাব্বির বকাউল, মোঃ সামসুদ্দীন খান, জাহিদুল ইসলাম ও মোঃ সজীব

শাহরিয়া পলাশ | ফোকাস মোহনা.কম