বঙ্গবন্ধুকে হারিয়ে আমরা নিজেদের অস্তিত্বকে হারিয়েছি : পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

মতলব উত্তরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা, মিলাদ দোয়া

মতলব উত্তর (চাঁদপুর): চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সকল সংগঠনের উদ্যোগে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ড. শামসুল আলম। বক্তব্যে তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট রাতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়েছে। এটা আমাদের জাতির জন্য একটি কলঙ্কময় অধ্যায়। বঙ্গবন্ধুকে হারিয়ে আমরা নিজেদের অস্তিত্বকে হারিয়েছি। কারণ বঙ্গবন্ধুর পরিচয়ে আমরা বিশ্বে পরিচিত। এতদিন বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে অনেক আগেই বিশ্বের মধ্যে আমরা উন্নত দেশে পরিণত হতে পারতাম।
ড. শামসুল আলম আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরেছেন। তাই আমরা দ্রুত উন্নত হচ্চি। কিন্তু তার উন্নয়নকে ধ্বংস করতে শেখ হাসিনাকে বার বার হত্যা চেষ্টা করা হয়। এটাও আমাদের বাঙালী জাতির জন্য অত্যন্ত দুঃখের বিষয়। আজকের এই দিনে শোককে শক্তিতে পরিণত করে আমাদেরকে এগিয়ে যেতে হবে এবং শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের উন্নয়নের জন্য ৩০০ কোটি টাকার প্রকল্প পাশ হয়েছে। দ্রুত প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন করে কৃষি ও কৃষককে বাঁচাতে হবে। আসন্ন ছেংগারচর পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীক বিজয়ের জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব অ্যাড. নুরুল আমিন রুহুল বলেন, ১৫ আগস্ট বাঙালী জাতির একটি কালো দিন। এ দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করেছে ঘাতকরা। সেই ঘাতকরা এখনো আমাদের ভিড়ে থেকে দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করতে চায়। কিন্তু সেই সুযোগ আর দেওয়া হবে না। বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শক্ত হাতে দেশ পরিচালনা করছেন। যেকোন মুল্যে বিএনপি জামায়াতের যড়যন্ত্রকে মোকাবিলা করা হবে। তিনি এই আগস্টের শোককে শক্তিতে পরিণত করে আগামী দিনে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

ছেংগারচর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাইয়ুম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রতন ফরাজীর পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক মতলব উত্তর উপজেলা চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম লস্কর, সহ-সভাপতি ও গজরা ইউপি চেয়ারম্যান শহীদ উল্লা প্রধান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মেজর জেনারেল সামছুল হকের পুত্র বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শরীফ উল্লাহ হাইস্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি আনিসুল হক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক উপকমিটির সদস্য লায়ন আলহাজ্ব আরিফ উল্যাহ সরকার, ধর্ম বিষয়ক উপকমিটির সদস্য ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কাজী মিজানুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, ছেংগারচর পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য আতিকুর রহমান, গুলশান থানা যুবলীগের সহ-সভাপতি ও ছেংগারচর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মাহবুবুর রহমান সেলিম প্রমুখ।
আরো বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি রহমত উল্লাহ চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি কামরুজ্জামান ইয়ার, ছেংগারচর পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জামান সরকার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক অ্যাড, মহসিন মিয়া মানিক, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সচিব অ্যাড. আক্তারুজ্জামান, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আবু হানিফ অভি প্রমুখ। সভায় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে দুপুরের ভোজে মিলিত হন উপস্থিত সকল নেতৃবৃন্দ ও উপস্থিত জনতা।

ফম/এমএমএ/আরাফাত/

আরাফাত আল-আমিন | ফোকাস মোহনা.কম