পৈত্রিক ভূমি রক্ষায় ফরিদগঞ্জে ৪ দিন অনশন কর্মসূচিতে ভুক্তভোগী পরিবার

ছবি: ফোকাস মোহনা.কম।

চাঁদপুর: চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার রুস্তুমপুর গ্রামের অসহায় এক পরিবার নিজেদের পৈত্রিক ভূমি রক্ষা ও উপজেলা ভুমি অফিসের ভুল রিপোর্ট প্রত্যাহারের দাবীতে গত ৪দিন আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করছেন।

বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত তাদেরকে উপজেলা প্রেসক্লাবের সামনে কর্মসূচি পালন করতে দেখা যায়। উপজেলা প্রশাসন তাদের ভুল রিপোর্ট প্রত্যাহার এবং তাদের সমস্যা সমাধান না করলে এই কর্মসূচি অব্যাহত রাখবে বলে জানান ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য শেখ ফরিদ আহমেদ।

দুই বছর ধরে পৈত্রিক ভুমি থেকে উচ্ছদের নানাভাবে হয়রানি, প্রকাশ্য দিবোলোকে হামলা মরধর, টিনেরঘর, দোকানঘর ভাংচুর, গাছগাছালি কেটে সাবাড়ের ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে এবং প্রশাসনের কোন সহযোগিতা না পাওয়ায় গত ২ জানুয়ারি সকাল থেকেই ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য ফয়েজ আহমেদ মৃধা, শেখ ফরিদ তার স্ত্রী ও শিশু সন্তান অনশন কর্মসূচি পালন করছেন।

অনশনে অংশ নেয়া ভুক্তভোগী শেখ ফরিদ মৃধার অভিযোগ, তাদের দখল ও দলিল মূলে বেশ কয়েকটি দাগে ৪৮.৬২শতক জায়গার মালিক এবং এ পর্যন্ত দখলে থেকে ভোগ করে আসছেন তারা। কিন্তু প্রভাবশালী একটি চক্র যাদের একজন মোশারফ হোসেন বাহার, মোজাম্মেল হোসেন বাবুল, আবুল কাশেম, দেলোয়ার হোসেন, লোকমান আমিনগং তাদের দলীয় প্রভাব খাটিয়ে সম্পত্তি দখল করার চেষ্টাসহ নিয়মিত হয়রানি করে আসছে। এ নিয়ে কয়েকবার প্রকাশ্যে শারীরিক হামলার শিকার হয়েছেন তারা। সর্বশেষ ২০২২ সালের ২০ ডিসেম্বর প্রকাশ্য দিবোলোকে তাদের সম্পত্তি দখলের চেষ্টার অংশ হিসেবে হামলা, মারধর, টিনেরঘর, দোকানঘর ভাংচুর, গাছগাছালি কেটে সাবাড়ের ঘটনা ঘটায়। ভুক্তভোগীরা নিরুপায় হয়ে ৯৯৯ ফোন দিলে পুলিশ দুই দফা ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঘটনার প্রতিপক্ষ লোকমান আমিনের ছেলে ওমর ফারুক বলেন, আদালতে মামলা চলমান অবস্থায় ফয়েজ মৃধাদের দখলে থাকা ওই সম্পত্তি ২০ ডিসেম্বর তারা দখলমুক্ত করেছেন।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল মান্নান বাংলানিউজকে বলেন, বিষয়টি নিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগটি আমলে নেয়া হয়েছে। তদন্ত করে ঘটনায় জড়িত ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ফম/এমএমএ/

 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম