পুলিশের সহযোগিতায় নিখোঁজ মেয়েকে ফিরে পেলেন মা

ঢাকার তুরাগ থানা থেকে নিখোঁজ হওয়া বাক প্রতিবন্ধী জুলিয়া আক্তারকে মা জাহানারা বেগমের হাতে তুলে দিয়েছে ফুলপুর থানার পুলিশ। আজ বুধবার দুপুরে ওসি ইমারত হোসেন গাজী ও সেকেন্ড অফিসার সুমন মিয়ার নেতৃত্বাধীন ফুলপুর থানার পুলিশ পরিবারের কাছে তুলে দেন অসহায় প্রতিবন্ধী এ কিশোরীকে।

জানা যায়, গত ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে রহিমগঞ্জ রাস্তার পাশে প্রতিবন্ধী কিশোরী ঘোরাঘুরি করতে দেখে ফুলপুরের রহিমগঞ্জের জনৈক আদম আলী তাকে উদ্ধার করে লিখিতভাবে ফুলপুর থানা পুলিশকে অবহিত করেন ও তার হেফাজতে রাখেন। বাক প্রতিবন্ধী হওয়ায় সে তার নাম ঠিকানা বলতে পারছিল না। পরে ফুলপুর থানার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকে ছবিসহ এ ব্যাপারে পোস্ট দিলে মুহুর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়। এক পর্যায়ে শনাক্ত হয় তার নাম জুলিয়া বাড়ি তুরাগ থানায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম  ভিকটিমের পরিচয় শনাক্ত করে তার প্রকৃত অভিভাবককে সংবাদ প্রদান করা হয়।

পরে আজ জুলিয়ার মা জাহানারা বেগম ঢাকা থেকে ফুলপুর থানায় এসে প্রয়োজনীয় কাগজ ও প্রমাণ পেশ করার পর পরিচয় নিশ্চিত হলে জুলিয়াকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

এ সময় মা জাহান্নাম বেগম জানান, জন্ম থেকে বাক প্রতিবন্ধী জুলিয়া। আজ কয়েকদিন ধরে নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে চিন্তিত ছিলাম। পুলিশের সহযোগিতায় মেয়েকে পেলাম।

এদিকে অভিভাবকের হাতে জুলিয়াকে ফেরত দেওয়া পুলিশের এ উদ্যোগ সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে।

ফম/এমএমএ/

নিউজ ডেস্ক | ফোকাস মোহনা.কম