পুরান বাজারে সম্পত্তিগত বিরোধের জেরে মা ও ছেলেকে কুপিয়ে জখম

চাঁদপুর: চাঁদপুর পুরান বাজারে সম্পত্তিগত বিরোধের জের ধরে সাবেক কমিশনার মৃত জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী ও পুত্রকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটেছে।
শনিবার (২৭ নভেম্বর) সকালে পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডে পুরান বাজার পোস্ট অফিসের পিছনে এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাটি ঘটে।
গুরুতর আহত অবস্থায় মা খাদিজা আলম ও পুত্র খায়রুল আলম কাশফিকে রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করায়।
আহতের পরিবাররা অভিযোগ করে বলেন, পুরান বাজার পোস্ট অফিসের পিছনে মৃত মিসির আলীর পুত্র জাকারিয়া বতু তার আপন বড় ভাই সাবেক কমিশনার জাহাঙ্গীর আলম মারা যাওয়ার পর তাদের সম্পত্তি একা ভোগ দখল করে আসছে।
জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী খাদিজা আলম ও পুত্র খায়রুল আলম কাশফীকে  তাদের বাড়ি থেকে উচ্ছেদের জন্য বিভিন্ন সময় হামলার ঘটনা ঘটিয়ে বহিরাগত সন্ত্রাসী দিয়ে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।
এছাড়া জাকারিয়া বতু তার বসত ঘরে মাদকাসক্ত ব্যক্তিদের নিয়ে প্রতিনিয়ত আসর বসিয়ে ওই এলাকা নষ্ট করে দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন খাদিজা বেগম। সে বিএনপি’র একজন সক্রিয় কর্মী হয়ে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে নেতাকর্মীদের সাথে সমন্বয় করে এলাকা রাম রাজত্ব কায়েম করেছে। এলাকার ভূমি দখল, মারামারি, সন্ত্রাসী সহ সকল কর্মকান্ডের সাথে সে জরিত।
ঘটনার দিন সকালে মৃতঃ জাহাঙ্গীর আলমের পুত্র ও তার স্ত্রীকে ঘর থেকে বের হয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিলে তার সাথে কাশফিকের  বাক-বিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে ছেলে কাশফিকে জাকারিয়া বতু মারধর করলে তার মা এগিয়ে গেলে তাকে ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এসময় তার মাথা ফেটে গেলে ব্যাপক রক্ত ক্ষরণ হয়। তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।
এদিকে এ ঘটনায় যাতে কোনো ধরনের মামলা না হয় ও কাউকে না জানায় সে জন্য জাকারিয়া বতু তাদেরকে চাপ প্রয়োগ করে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। এই ঘটনায় ভূমিদস্যু জাকারিয়া বতুর হুংকারে অসহায় মা ও ছেলে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।
এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে হামলাকারী সন্ত্রাসী জাকারিয়া বতুর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জোর দাবী জানান ভুক্তভোগী পরিবার।
ফম/এমএমএ/

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম