পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী উৎসব প্রধানমন্ত্রীর প্রতি চাঁদপুরবাসীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশের সুযোগ

--- শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি

চাঁদপুর: পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চাঁদপুরের উৎসব সম্পর্কে শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, জেলায় সেদিন সর্বোচ্চ উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে। এক্ষেত্রে প্রশাসনের পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিরাও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারবেন। কারণ চাঁদপুরকে মাননীয় প্রধামনন্ত্রী অনেক কিছু দিয়েছেন। কৃতজ্ঞতা প্রকাশের জন্য এটি আমাদের একটি বড় সুযোগ।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) বিকেলে চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভায় ভার্চূয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনাকে, তার পরিবারকে, তার সহকর্মীদেরকে হেয় করা সকল প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে। কিন্তু শেখ হাসিনার সততা, দেশপ্রেম দৃঢ়তা, সাহস, প্রজ্ঞা আর দূরদর্শিতার কাছে পরাজিত হয়েছে সকল ষড়যন্ত্র। এই পদ্মা সেতু বাঙালির আত্মবিশ্বাস ও আত্মমর্যাদার প্রতীক। বাঙালির সাহস আর দৃঢ়তার প্রতীক।

মন্ত্রী বলেন, আমি আশা করছি চাঁদপুরে বর্ণাঢ্য আয়োজন হবে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি হিসেবে দলীয় অবস্থান থেকে বলতে পারি অঙ্গসহযোগী সংগঠনের সর্বোচ্চ উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করবো ইনশাআল্লাহ। এছাড়াও বর্ণাঢ্য আয়োজনের আরো যা করা প্রয়োজন তা করা হবে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানের জন্য যে আয়োজন থাকবে সেখানে যদি আমাদের কোন কিছু করার থাকে তাও করব। একই সাথে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করার জন্যও আমাদের সহযোগিতা থাকবে।

সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) কামরুল হাসান। তিনি বলেন, আমাদের গৌরবের, গর্বের ও অহংকারের অনুষ্ঠানটি যত বর্নিলভাবে করা যায়, তা আমরা করব।

যেহেতু কোভিড এখনো শেষ হয় নি, তাই আমাদের সকলকে মাস্ক পরতে হবে। চাঁদপুর শহরের রাস্তা অনেক সরু রাস্তা। যেহেতু অনেক মানুষের সমাগম হবে, সেহেতু যানযটের একটা শঙ্কা থাকতে পারে। এজন্যে পুলিশ প্রশাসনসহ, স্কাউট, বিএনসিসিএর সদস্যরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. ইমতিয়াজ হোসেন এর সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মিলন মাহমুদ, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ সাহাদাৎ হোসেন, প্রেসক্লাব সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন, ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম রোমান, চাঁদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অসিত বরণ দাশ, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. মাসুদুর রহমান, জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার মো. আয়াজ মাবুদ, জেলা শিল্পকলা একাডেমির নির্বাহী সদস্য শহিদ পাটোয়ারী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবু, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী ও সাংবাদিক এমআর ইসলাম বাবু প্রমূখ।

ফম/এমএমএ/

শাহরিয়া পলাশ | ফোকাস মোহনা.কম