নষ্ট প্রেমের পদ্য (কবিতা)

—-যুবক অনার্য
১.
নারী
তুমি ভাসতে থাকো
আমি আসছি
দু’জনে একসঙ্গে ডুবে মরবো
ভেসে যেতে যেতে
২.
তুমি ‘না’ বোল্লে নিজেকে নষ্ট মনে হয়
তুমি ভালোবাসলে নিজেকে ঈশ্বর মনে হয়
৩.
আমি কৃষ্ণ হতে চেয়েছি তোকেই তো রাধা ভেবে
তুই দ্রৌপদী হতে চাইলি না আমাকেই অর্জুন ভেবে
৪.
আমি না হয় কলঙ্ক আর তার পাশে চাঁদ তুই
কতো যে শ্যাম শরীরে তোর কাটছে সাঁতার
বুঝতে পারি যখন তোকে ছুঁই
৫.
নারী
চলে গেলে অর্ধেক পুড়িয়ে চলে যায়
মায়াবী মোড়কে ফিরে আসে যদি তবে বাকীটা পোড়ায়
৬.
নীল রাত কালো রাত আর সাদা রাত
আমার হাতের কাছে নেই তোর হাত
আগুনে আগুন জ্বলে
জ্বলে যাক পুড়ে যাক
আমাদের নামহীন নষ্ট প্রেমের ধারাপাত
৭.
অশ্লীল কিংবা অযৌক্তিক নয়
যাপিত জীবনে অন্তত একবার
একটি অবৈধ প্রেমের পূর্ণাঙ্গ নিশ্চয়তা চাই
৮.
তোমার কাছে রেখেছিলাম নীলাভ কররেখা
রেখেছিলাম হৃদয়-আঁকা লাল খামে নীল গদ্য
কররেখা মুছে দিয়ে
উড়ো খামে পাঠিয়েছিলে নষ্ট প্রেমের পদ্য
৯.
আজকাল তোমার মধ্যবর্তী আগুনে
ভাড়াটে শেয়ালের ছাপ
আজকাল তোমার ষোড়শী উনুনে
নষ্ট কষ্টের ক্ষুধার্ত সন্তাপ
১০.
প্রেমের পুরানো পাপী আমি
তুমি রাই বিনোদিনী
আভরণে নগ্ন তুমি বেশরীরে ঢাকা
পাপের ছোবলে  বিশুদ্ধ ক’রে দিয়ে
তোমাকে করে যাই নিদারুণ ঋণী

ফোকাস মোহনা.কম