নষ্ট জন্মের কাছে নতজানু (কবিতা)

—যুবক অনার্য
আমার জন্মপ্রক্রিয়ায় আমার কোনো হাত ছিলো না।পিতামাতা বাজিয়েছিলো প্রেমজ অথবা প্রেমহীন সেই সঙ্গম যা মানুষের সমাজে আইন ও ধর্মিসিদ্ধ নয়। নারী পুরুষ আপোষে সেরে নিলেও সভ্য সমাজে দন্ডনীয় অপরাধ। তাই আমি জারজ, বিদেশি ভাষায় – বাস্টার্ড। অথচ অবৈধভাবে আমি তো ছেনে যাই নি রমণীর নগ্ন সরোবর চঞ্চুর চিকন আঘাতে দগ্ধ করিনি লিপস্টিক জড়ানো ঠোঁট। অরন্তুদ তৃষ্ণায় এক চিলতে প্রেম- সেও নাকোচ করেছি নির্মম নিস্প্রয়োজনে। নষ্টজন্মের কাছে তবু আমি খরা বিশালক্ষ্যা নদীর তীরে রুগ্নক্ষরণ হৃদয়ে সুগন্ধি নিয়ে তবু আমি ভাঙনের সুর মৃত্যুহীন লোবানের ঘ্রাণ নিঝুম নরক।অথচ জন্মপ্রক্রিয়ায় আমার কোনো ষড়যন্ত্র কিংবা ছিলো কি কোনো কারসাজি!সৃষ্টির শর্ত হলো জাইগোট- ফর্ম।যেকোনো ভাবে ফর্ম হলেই সন্তান সৃষ্টি হয়ে যাবে।মহাবিজ্ঞানের কোথাও বৈধ বা অবৈধ জাইগোট ফর্ম বোলে কিছু নেই।শুধু এই বকসর্বস্ব সমাজ ধর্ম আর কায়েমি চরকা ঘুরিয়ে আমাকে ক্রমাগত বলে যায়- তুই বাস্টার্ড বারো ভাতারি মাংসের পাপ।
হায় মানুষেরা এখনো বুঝলো না- মহাবিজ্ঞানে জারজ বলে কিছু নেই বৈধ বা অবৈধ সঙ্গম বলেও কিছু নেই।প্রতিটি সন্তান জরায়ুর সৃষ্টি ক্ষমতার সংবাদবহনকারী এক অবিসংবাদিত ভ্রুন।প্রতিটি ভ্রুণ আদিম উল্লাস থেকে ছিটকে পড়া প্রাগৈতিহাসিক এক জৈব পুরোহিত।

ফোকাস মোহনা.কম