দুদকের জালে ইউপি চেয়াম্যানসহ ৫ খাদ্য কর্মকর্তা

দিনাজপুর পাঁচটি ভূয়া প্রকল্প দেখিয়ে ৬ মেট্রিক টন চাল আত্মসাতের অভিযোগ এক ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৫ সরকারি কর্মকর্তা আটক দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (১৩ নভেম্বর) জেলার বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে দুদক।

দুদকের দিনাজপুর সমন্বিত কার্যালয়ের পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান তাদের আটক করেন।

আটক ব্যক্তিরাহলেন – ঠাকুরগাঁঁও জেলা সদরের ২১নং ঢোলারহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সীমান্ত কুমার বর্মন (নির্মল), ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) গোলাম কিবরিয়া, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা বিল্পব কুমার সিংহ রায়, ঠাকুরগাঁও সদরের গড়েয়াহাট খাদ্য গুদাম ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাঈদুল ইসলাম, ঠাকুরগাঁও সদর খাদ্য গুদাম ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহাবুদ্দিন আহাম্মদ, ঠাকুরগাঁও জেলার শিবগঞ্জ খাদ্য গুদাম ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস, এম, গোলাম মোস্তফা।

সমন্বিত দিনাজপুর দুদক কার্যালয়ের উপপরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান জানান, আটকৃব্যক্তিরা পরস্পর যোগসাজসে জালিয়াতিমূলকভাবে কাগজপত্র তৈরি করে অসৎ উদ্দেশ্যে ঠাকুরগাঁও জেলার মাহালিয়াহাট বাজার জামে মসজিদ, মাধবপুর উন্নয়ন যুব সংঘ, মাধবপুর ফোরকানিয়া মাদ্রাসা, মাধবপুর রামকৃষ্ণ মন্দির ও ব্যারিস্টার জামে মসজিদের ৫টি ভুয়া প্রকল্প দেখিয়ে ৬ মেট্রিকটন চাল আত্মসাৎ করে।

তিনি জানান, ভূয়া প্রকল্পের আত্মসাৎ চালের আনুমানিক বাজার মূল্য ২ লাখ ৩৪ হাজার ৬০৮ টাকা। দিনভর বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আটক করা হয় বলে জানান তিনি।

আটক ব্যাক্তিদেরকে বিরুদ্ধে সরকারি চাল আত্মসাতের মামলা দায়ের করে আদালতের মাধ্যমে দিনাজপুর জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

ফম/এমএমএ/

নিউজ ডেস্ক | ফোকাস মোহনা.কম