দায়িত্বে থাকি আর না থাকি চাঁদপুর পৌরসভার উন্নয়নে কাজ করে যাব

পৌর এলাকার উন্নয়নে মেয়রের সাথে রেলওয়ে কর্মকর্তাদের মতবিনিময়

চাঁদপুর: চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র এডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেছেন, আমি বর্তমানে চাঁদপুর পৌরসভার উন্নয়নে শহরের বিভিন্ন স্থানে অবকাঠামো নির্মান, শহরের সড়কগুলো প্রশস্ত করন, ড্রেনেজ ব্যবস্থা সচল রাখা, মশার উপদ্রব নিরসন, শহরের যানজট লাগব, স্যানিটেশন ব্যবস্থা জোরদার করাসহ পৌর নাগরিকের সঠিকভাবে সেবায় ও তাদের শান্তিতে পৌর এলাকায় বসবাসসহ সকল প্রকার দায়িত্ব পালন করার চেস্টা করে যাচ্ছি। আগামীতে এ পৌসভার দায়িত্বে থাকি, আর না থাকি আমি চাঁদপুর পৌরসভার উন্নয়নে সকল প্রকার কাজ করে যাব।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে চাঁদপুর পৌরসভার উন্নয়নে রেলওয়ের সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার লক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ের কর্মকর্তাদের সাথে এক মতবিনিময়ে মিলিত হয়ে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

এ ছাড়া শহরের বিভিন্ন স্থানে পৌর এলাকার রেলওয়ের জমিতে কাজ করাকালিন উন্নয়নে তাদের সহায়তা চেয়েও ব্যাপক আলোকপাত করেন।

এ সময় চাঁদপুর পৌর কাউন্সিলর, চাঁদপুর প্রেস ক্লাব,জেলা সাংবাদিক ক্লাবের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ও সুধীজনরা উপস্থিত ছিলেন।

পরে পৌর মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল রেলওয়ে কর্মকতা, সাংবাদিক নেতৃবৃন্দসহ শহরের মিশনরোডস্থ শাহী মসজিদের সামনে পৌর এলাকার উন্নয়নকৃত স্থান পরিদর্শন করেন এবং অচিরেই এ এলাকার উন্নয়ন হবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন এলাকাবাসীকে।

চাঁদপুর পৌরসভার মতবিনিময়কালে উপস্থিত থেকে বিভিন্ন উপদেশ প্রদান করেন, চাঁদপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র ফরিদা ইলিয়াছ, রেলওয়ে কর্মকর্তা উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পূর্ত) লিমন মজুমদার, মো: মহসিন মল্লিক উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (সংকেত) পৌর ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: সফিকুল ইসলাম, ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর চান্দ্রা মাঝি, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি এ এইচএম আহসান উল্লাহ্, সহ-সভাপতি শাহাদাত হোসেন শান্ত, যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ শওকত আলী, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মাহফুজুল ইসলাম টুটুল, ছাত্র নেতা মো: হোসেন আলী মিন্টু ও স্থানীয় রেলওয়ের মো: সোলেমান ভুঁইয়া প্রমুখ।

পৌর মেয়র আরো বলেন, চাঁদপুর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের ওয়ারলেছ এলাকা থেকে মিশন রোড হয়ে রাস্তাটির পাশে রিটানিং দেওয়াল করে স্থায়ী ভাবে সড়কটি লেক পর্যন্ত প্রশস্ত করা হবে। এ রিটার্নিং দেওয়ালের বাহিরে কেহ দখল করে অবৈধ স্থাপনা করতে পারবেনা। চাঁদপুর পৌর এলাকার সকল ফুটপাত মেরামত করে চলাচলের উপযুক্ত করে দেওয়া হবে। এ ফুটপাত নির্মান কালে ফুটপাতে থাকা সকল অবৈধ দখলদারকে উঠিয়ে দেওয়া হবে। এ সময় প্রয়োজনে অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলা হবে। তিনি রেলওয়ের কর্মকর্তাদের পৌরসভার উন্নয়নে সহযোগিতা করতে গিয়ে বলেন, চাঁদপুর পৌরসভা বর্তমানে বতুর্কি দিয়ে যাচ্ছে। আমরা শিক্ষার মান উন্নয়নে চাঁদপুর পৌরসভা নিজেদের খরচে ৪টি বিদ্যালয় পরিচালনা করে যাচ্ছি।

পরে পৌরসভার মেয়র এডভোকেট মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান জুয়েল মিশন রোডস্থ এলাকা পরিদর্শন কালে তার সাথে ছিলেন, রেলওয়ে কর্মকর্তা উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পূর্ত) লিমন মজুমদার বাংলাদেশ রেলওয়ে, মো: মহসিন মল্লিক উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী সংকেত বাংলাদেশ রেলওয়ে, পৌর ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: হাবিবুর রহমান দর্জি, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি এ এইচএম আহসান উল্লাহ্, সহ-সভাপতি শাহাদাত হোসেন শান্ত, যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ শওকত আলী, ছাত্র নেতা মো: হোসেন আলী মিন্টু ও স্থানীয় রেলওয়ের মো: সোলেমান ভুঁইয়া প্রমুখ।
ফম/এমএমএ/

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম