দশ জেলের দিনের রোজগার সাড়ে ৪হাজার টাকা

হরিণা ফেরিঘাটের জেলে নৌকা। ছবি: ফোকাস মোহনা.কম

চাঁদপুর: চাঁদপুর সদর উপজেলার হানারচর ইউনিয়নের হরিণা ফেরিঘাট এলাকার ১০জন জেলে এক নৌকায় বিশাল জাল নিয়ে পদ্মা-মেঘনায় ইলিশ শিকারে নেমে পেয়েছেন কিছু ছোট বড় ইলিশ এবং একটি পাঙ্গাস মাছ। যা বিক্রি করে পেয়েছেন মাত্র সাড়ে ৪ হাজার টাকা। এতে করে তারা অনেকটা হতাশা ব্যক্ত করেন।

রোববার (৩০ অক্টোবর) বেলা ৩টার দিকে হরিণা ফেরিঘাটের উত্তরে জেলে নৌকা ঘাটে ভিড়ানোর পর নদীতে ইলিশ মাছের পরিস্থিতি জানতে চাইলে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইলিশ মাছ যা পেয়ে তা বিক্রি হয়েছে দেড় হাজার টাকা এবং একটি বড় পাঙ্গাস মাছ বিক্রি করেছি ৩ হাজার টাকা। সকাল থেকে আমাদের নৌকার জ¦ালানি খরচ হয়েছে ৩ হাজার টাকা। এখন আমরা দশজন জেলে কত টাকা করে পাব?

ওই জেলে বলেন, নদীতে এখন ইলিশের সংখ্যা খুবই কম। তবে অক্টোবরের শেষ থেকে নভেম্বর ২০ তারিখ পর্যন্ত নদীতে পাঙ্গাস মাছ পাওয়া যাবে। এরপর আর থাকে না।

হরিণাঘাটের একজন মাছ ব্যবসায়ী জানান, নদীতে ইলিশের চাইতে পাঙ্গাসই বেশী পাওয়া যাচ্ছে। অভিযানের পর থেকে এমন পরিস্থিতেই দেখছি। প্রতিকেজি পাঙ্গাস আজকে সাইজ অনুসারে ৫৫০ থেকে ৬৫০টাকা বিক্রি হয়েছে।
পাঙ্গাস মাছ বেশী পাওয়ার কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞার সময় নদীতে জাল না থাকায় পাঙ্গাস মাছসহ অন্যান্য প্রজাতির মাছ অবাধ বিচরণের সুযোগ পেয়েছে। যে কারণে পাঙ্গাস মাছ ধরা পড়ছে।
ফম/এমএমএ/

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম