মতলব উত্তরে দুর্ধর্ষ ডাকাতি : আহত ৩

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে পুলিশ প্রশাসন।

মতলব উত্তর (চাঁদপুর): চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ঘাসিরচর গ্রামে একটি বাড়িতে বুধবার রাত আনুমানিক ১ টার সময় দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মোফাজ্জল সরকার, তার স্ত্রী লাইলী বেগম ও ছেলে সাব্বির হোসেন গুরুতর আহত হন।

বুধবার (৩১ আগস্ট) সকালে সহকারী পুলিশ সুপার (মতলব সার্কেল) ইয়াসির আরাফাত ও মতলব উত্তর থানার ওসি মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ডাকাতির শিকার লাইলী বেগমের মেয়ে মারিয়া বলেন, রাতে আমরা তিন ভাই বোন চৌচালা ঘরে শুয়ে ছিলাম। আর বাবা মা পাশের দোচালা ঘরে ছিল। ডাকাতরা এসে বলে আমরা আইনের লোক দড়জা খোল। আমরা ভয়ে হতভম্ব হয়ে যাই। পরে তারা বাহির থেকে দড়জা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে আমার ভাই সাব্বির হোসেনকে মেরে হাত পা বেঁধে ফেলে আর হুমকি দেয় কথা বললে রাম দা দিয়ে কুপিয়ে প্রাণে মেরে ফেলবো। তারা আমার ভাইয়ের একটি মোবাইল ফোন, আমার কানের দুল, একটি আংটি, আমার ছোট বোনের কানের দুল ও একটি চেইন খুলে নিয়ে যায়। আমাদের ঘরে ৫-৭ জন প্রবেশ করায় ভয়ে হতভম্ব হয়ে পড়ি এবং তাদের সাথে রাম দা ও অস্ত্র থাকায় প্রতিবাদ করতে সাহস পাইনি।

লাইলী বেগম বলেন, আমি যেই ঘরে শুয়ে ছিলাম, ওই ঘরেও কয়েকজন দড়জা ভেঙ্গে প্রবেশ করে। ঘরে ঢুকেই আমার মাথায় রাম দা দিয়ে কোপ মারে। আর আমার স্বামীকে মারধর করে। আমাদের ঘরে ৩০ হাজার টাকা ছিল, প্রানের ভয়ে ওই টাকা দিয়ে দিয়েছি। আর বলি যা কিছু আছে নিয়ে যান, আমাদেরকে প্রাণে মারবেন না। পরে তারা টাকা ও জিনিসপত্র নিয়ে বেরিয়ে গেলে বাহিরে এসে ডাক চিৎকার দেওয়ার সাথে সাথে ডাকাত দল লোকেরা দ্রুত পালিয়ে যায়।

এদিকে সহকারী পুলিশ সুপার (মতলব সার্কেল) ইয়াসির আরাফাত ঘটনা পরিদর্শনের পর এ বিষয়ে বক্তব্য দিতে রাজি হননি। তবে ওসি মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল অব দ্যা রেকর্ডে বলেন, ঘটনাটি আমরা প্রাথমিক ভাবে তদন্ত করেছি। মামলা হলে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।
এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এটা সহ সম্প্রতি তিনটি ডাকাতির ঘটনা ঘটল। রসুলপুর ট্রেকচার সংলগ্ন নয়াকান্দি একটি বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এছাড়াও ঢাকা থেকে চাঁদপুরগামী একটি গাড়ি বহরে শিবপুর নামক এলাকায় বেরীবাঁধের উপর হামলা করে ডাকাত দল। পরপর তিনটি ঘটনার কারণে মতলব উত্তরের জনসাধারণের মাঝে আতংকে বিরাজ করছে। এমন পরিস্থিতিতে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হয়েছে বলেও জানান সাধারণ মানুষ।

ফম/এমএমএ/আরাফাত/

আরাফাত আল-আমিন | ফোকাস মোহনা.কম