চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে আগুন আতঙ্কে রোগী নিয়ে ছোটাছুটি

চাঁদপুর : ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে মোবাইল চার্জার লাগানো অবস্থায় সকেট বিষ্ফোরণ হয়েছে। বিষ্ফোরণ হওয়ার সাথে সাথে ধোয়া ববের হলে হাসপাতালে থাকা রোগী ও রোগীর স্বজনরা দিকবিদিক ছোটাছুটি শুরু করেন। তবে এ ঘটনায় কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

শনিবার (২৭ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় হাসপাতালের ৪র্থ তলার মহিলা (সার্জারী) ওয়ার্ডে এ ঘটনাটি ঘটে।

আগুনের খবর শুনে চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিস উত্তরের সদস্যরা ছুটে আসেন।

ওয়ার্ডে ভর্তি থাকা রোগী নাছরিন ও রেখা জানান, হঠাৎ বিকট শব্দের সাথে ধোঁয়া বের হলে ওয়ার্ডের সকল রোগীরা দ্রুত বের হয়ে যায়। হাসপাতালের বারান্দায় ভাঙ্গা পা নিয়ে দাড়িয়ে থাকা মাইনুল ইসলাম জানায়, আমার পায়ে অপারেশন করা হয়েছে। উপরে নাকি আগুন লাগছে বলে ওয়ার্ডের অন্য রোগীরা ছোটাছুটি শুরু করলে স্বজনরা আমাকে ধরে বারান্দায় নিয়ে এসেছে।

হাসপাতালের ৪র্থ তলায় দায়িত্বরত নার্স (সেবিকা) অঞ্জু বিশ্বাস ও রেহানা বেগম জানান, হাসপাতালের ৪র্থ তলার মহিলা (সার্জারী) ওয়ার্ডের ৩নং বেড এর পাশে মোবাইল চার্জার লাগানো অবস্থায় সকেট বিষ্ফোরণ হয়। রোগীদের কিছু হয়নি বললেও তারা আগুন আগুন বলে চিৎকার করতে করতে বের হয়ে যায়।

চাঁদপুর ফায়ার সার্ভিস উত্তরের ইন্সপেক্টর মোঃ জাকির হোসেন বলেন, মোবাইল চার্জার লাগানো অবস্থায় সকেট বিষ্ফোরণ হয়ে ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়। তবে কে বা কারা ধোঁয়া সৃষ্টি হলে পানি দেয়। তবে বড় কোন দূর্ঘটনা ঘটে নি। আমরা রোগী ও স্বজনদের আতঙ্কিত না হয়ে নিজস্ব বেডে চলে যাওয়ার জন্য সহায়তা করি।

চাঁদপুর সরকারী জেনারেল হাসপাতালের ডিউটিরত চিকিৎসক মোঃ ওমর ফারুক রূপক জানায়, এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

ফম/এমএমএ/

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম