চাঁদপুর সদরের দুই ইউনিয়নের সীমান্ত সড়কটি এখন চলাচলের অযোগ্য

ছবি: ফোকাস মোহনা.কম।

চাঁদপুর: চাঁদপুর সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের সাখুয়া ও ইব্রাহীমপুর ইউনিয়নের রামদাসদী গ্রামের সীমান্তবর্তী খালের পাড়ের সড়কটি মেরামত না হওয়ায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। যার ফলে সাখুয়া সুইজগেট থেকে শুরু করে মেঘনা নদীর পাড় পর্যন্ত বসবাসকারী মানুষের চলাচলে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। চাঁদপুর-হাইমচর সড়কে সংযুক্ত সড়কটির শুরুতে যানবাহন চলাচল বন্ধ করার জন্য বাঁশের খুটি দিয়ে রাখা হয়েছে।

সম্প্রতি সময়ে ওই এলাকায় গিয়ে দেখাগেছে, দুই ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এই সড়কটির এলাকায় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একটি মসজিদ রয়েছে। বসবাস করেন বহু মানুষ। বিশেষ করে নাজির খা বাড়ী, গাজী বাড়ী, পাটওয়ারী বাড়ীসহ আশপাশের বহু বাড়ীর লোকজন এই সড়কটি দিয়ে চলাচল করেন। এছাড়াও খালের সুবিধার কারণে দুই ইউনিয়নের অনেক জেলে এখানে নৌকা রাখেন এবং তাদের জাল মেরামত কাজ করার জন্য এখানে আসেন।

স্থানীয় বাসিন্দা সাত্তার খান বলেন, গত বছরে কিছু মেরামত কাজ হয়েছে। কিন্তু ভালভাবে কাজ হয়নি। কারণ দুই ইউনিয়নের সীমান্ত এলাকায় এই সড়কটি হওয়ার কারণে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে উদ্যোগ নিয়েও কাজ বন্ধ হয়ে থাকে। দুই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান যৌথভাবে বরাদ্দ দিয়ে খালের পাড়ে গাইড ওয়াল দিয়ে মেরামত করলে সড়কটি আর ভেঙে পড়বে না।

স্থানীয় বাসিন্দা শাহজাহান ও আনোয়ার হোসেন বলেন, এলাকার অবহেলিত মানুষের চলাচলের কথা চিন্তা করে দুই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ইউপি সদস্য উদ্যোগ নিলে সড়কটি মেরামত করা সম্ভব। কারণ মাটির সড়কে বরাদ্দ কম হলেও কাজ করতে পারবে। কিন্তু জরুরি ভিত্তিতে খালের পাড়ে গাইড ওয়াল না দিলে সড়কের চিহ্ন খুঁজে পাওয়া যাবে না।
ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম