চাঁদপুর পৌরসভা নিজস্ব আয় থেকে গত ২ বছরে ১২ কোটি টাকার কাজ করেছে

চাঁদপুর শহরের পালবাজার ব্যবসায়ীদের সাথে পৌর মেয়রের মতবিনিময় সভা

বক্তব্য রাখছেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান। ছবি: ফোকাস মোহনা.কম।

চাঁদপুর:  চাঁদপুর শহরের পালবাজারের ব্যবসায়ীদের সাথে তাদের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে মতবিনিময় সভা করেছেন পৌর মেয়র মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল।

বৃহস্পতিবার  (১০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় পৌর পাঠাগারে পালবাজার ব্যবসায়ীবৃন্দ, পৌর মেয়র, প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলরদের নিয়ে এ সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সকলে তাদের মতামত তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন।

বক্তব্যে পালবাজার ব্যবসায়ীরা বলেন, ঐতিহ্যবাহী এই বাজারটি চাঁদপুর পৌরসভা ধারা নিয়ন্ত্রিত। মেয়র সাহেব আমাদের অভিবাবক।মেয়রকে এ বাজার পরিচালনার জন্য একটি কমিটি বা নির্বাচনের মাধ্যমে কমিটি গঠন করার উদ্যোগ নিতে এবং বাজারের বিরাজমান সমস্যাগুলো সমাধানের দাবি জানান।

চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল। তিনি তার বক্তব্য বলেন, শহরের প্রধান বাজারের মধ্য একটি বাজার হলো পালবাজার। এই বাজারের ঐতিহ্য ধরে রাখতে হবে। নিয়ম কানুন মেনে এবং শৃঙ্খলার সাথে ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা পরিচালনা করবেন। পৌর পরিষদ ব্যবসায়ীদের কল্যানে কাজ করে যাবে। চাঁদপুর পৌরসভা নিজস্ব আয় থেকে গত ২ বছরে ১২ কোটি টাকার কাজ করেছি। শিঘ্রই বকুলতলা এলাকার রাস্তাটি করে দেওয়া হবে। সকাল সাড়ে ৮টার পর রাস্তার উপর লোডি আনলোডিং করতে দেওয়া হবে না। যান চলাচল স্বাভাবিক করতে পালবাজারের সামনের রাস্তাটি সচল রাখতে হবে। পালবাজারের ইজারার মেয়াদ নেই। কিভাবে ইজারা পুনরায় নেয়া যায় সেই ব্যবস্থা করতে হবে। পালবাজারের ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ। ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের নিচে কোন বাজার হবে না। প্রয়োজনে ভবনটি ভেঙ্গে নতুন করে করা হবে। আর ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করা যাবে না, ফুটপাত চলাচলের উপযোগী করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, চাঁদপুর পৌরসভার এখন আর কোন বকেয়া নেই। পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বকেয়া বেতন চাঁদপুর পৌরসভা পরিশোধ করেছে। ২০০৭ সাল থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ৭ বছরের অবসরপ্রাপ্তদের টাকা আমরা পরিশোধ করেছি। বাকিদের পর্যায়ক্রমে  ৫৮ টা মিটার থেকে ৩৪ টি মিটারের সকল বকেয়া পরিশোধ করে প্রিপেইড মিটার করেছি। সড়ক বাতি থেকে আমাদের বিল আসত সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা, আর এখন সাড়ে ৩ লক্ষ টাকা বিল আসে। চাঁদপুর পৌরসভার পানি আয়ের একটি বড় খাত। তা দিয়ে রাস্তা-ঘাটের কাজে ব্যয় করা হয়। সকলের সহযোগীতায় চাঁদপুর পৌরসভা কে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

এ ছাড়া বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র ফরিদা ইলিয়াস, অ্যাডঃ হেলাল হোসাইন,  পৌর কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান দর্জি, সোহেল রানা, পৌর প্রশাসনিক কর্মকর্তা মফিজ উদ্দিন হাওলাদার, পৌর বাজার পরিদর্শক মোঃ শাহজাহান মাঝি।

ব্যবসায়ীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন অ্যাডঃ দেবাশীষ কর মধু, হারুনুর রশিদ পাটওয়ারী, ব্যবসায়ী মিজান হাওলাদার, সফরুদ্দিন মাষ্টার, জাকির হোসেন, ফারুক মৃর্ধা ও সঞ্জিব পোদ্দার প্রমূখ।

ফম/এমএমএ/

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম