চাঁদপুরে ৪ রকমের পেঁয়াজ নিয়ে বাজারে হুলুস্থুল কান্ড!

চাঁদপুর: গত কয়েকমাস সারাদেশের ন্যয় চাঁদপুরের বাজারগুলোতে পেঁয়াজের মূল্য বেড়েই চলছে। বাজারে সঠিক মনিটরিং এবং ব্যবসায়ী সমিতির কোন তদারকি না থাকায় পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট খুচরা ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের পকেট কাটছে। বর্তমানে সিন্ডিকেটের কাছে সাধারণ মানুষ জিম্মি হয়ে পড়েছে। ব্যবসায়ীরা ঘূর্ণিঝড়ের দোহাই দিয়ে এখন নতুন করে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৮০টাকা বৃদ্ধি করেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এখন পেঁয়াজ সমাচার নিয়ে ব্যস্ত।

বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় শহরের বিপনীবাগ বাজারসহ পাড়া মহল্লার দোকানগুলোতে পেঁয়াজের মূল্য একেক স্থানে একেক রকম পাওয়াগেছে। বিপনীবাগ বাজারে পাওয়াগেছে ৪ রকমের পেঁয়াজ। মূল্য ভিন্ন ভিন্ন।

বাজারের ব্যবসায়ীরা বলেন, আজকের বাজারে বার্মা, মিশর ও দেশীয় ২ রকমের পেঁয়াজ রয়েছে। বার্মা পেঁয়াজ প্রতি কেজি ১৯০টাকা, মিশরী পেঁয়াজ ১৬০-১৭০টাকা, দেশীয় পেঁয়াজ সাধারণ ২০০ থেকে ২১০টাকা, দেশীয় উন্নতমানের প্রতি কেজি ২২০টাকা। এছাড়াও বাজারে পচা পেয়াজ ১৫০-১৬০টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

বিপনীবাগ বাজারে আসা নারী ক্রেতা ও চাঁদপুর সরকারি কলেজের শিক্ষক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বাজারে পেঁয়াজ ক্রয় করতে এসে নাজেহাল অবস্থায় পড়েছি। দাম বেশী কেন, জিজ্ঞাসা করলে দোকানীর বক্তব্য হচ্ছে ‘কিনলে কিনেন না কিনলে চইল্যা যান’। ‘যেখানে কম পান সেখান থেকে কিনেন।’

বিপনীবাগ বাজারে মুদি ব্যবসায়ী শরীফ বেপারী বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের কারণে পেয়াজ আমদানি করতে সমস্যা হয়েছে। অনেক পেঁয়াজ ট্রাকের মধ্যে পচেগেছে। যার কারণে ওইসব পচা পেয়াজ আলাদা করে বিক্রি করেও আমরা লোকসানের মধ্যে আছি।
ফম/এমএমএ/

শাহ আলম খান | ফোকাস মোহনা.কম