চাঁদপুরে মদ পান করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর, বিএনপি নেতা গ্রেফতার

চাঁদপুর: চাঁদপুর শহরের ঐতিহ্যবাহী ব্যবসা কেন্দ্র পালবাজারে মদ পান ও মাদক সেবন করে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাংচুর, ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের ওপর আক্রমন করার অপরাধে ব্যবসায়ীদের অভিযোগের ভিত্তিতে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র নেতা শাহাদাত হোসেন হাওলাদারকে (৪৮) চাঁদপুর শহরের নতুন বাজার পুলিশ ফাড়ির উপ-পরিদর্শক ইসমাইল হোসেন সঙ্গীয় পুলিশসহ গ্রেফতার করেছেন।

পরে চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ তাকে রোববার (১৩ নভেম্বর) বিকেলে আদালতে পাঠালে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে জেলা কারাগারে প্রেরন করার নির্দেশ দিয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

ব্যবসায়ী ও পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, অভিযুক্ত শাহাদাত হোসেন হাওলাদার শহরের কোড়ালিয়া রোডস্থ এলাকার হাওলাদার বাড়ীর বাসিন্দা। তার পিতার নাম মৃত: কুদ্দুছ হাওলাদার। সে চাঁদপুর শহরের প্রান কেন্দ্রের পৌর ৮নং ওয়ার্ডের জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সাধারণ সম্পাদক।

শনিবার (১২ নভেম্বর) রাতে শাহাদাত হাওলাদার শহরের ঐতিহ্যবাহী ব্যবসা কেন্দ্র পালবাজারে মদ পান ও মাদক সেবন করে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়, ভাংচুর করে ও ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের ওপর আক্রমন করে এবং ব্যবসায়ীদের বাবা-মার নাম নিয়ে গাল-মন্দ করে তাদের উপর তেড়ে উঠে।
এ সময় পালবাজারে মালামাল ক্রয় করতে আসা ক্রেতাদের ওপরও সে হামলা চালায় এবং ক্রেতাদেরকে গালমন্দ করে পরিবেশ বিষিয়ে তুলে। এক পর্যায়ে শাহাদাত হাওলাদার মদ পান শেষে তার হাতে থাকা মদ্যপ ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের গায়ে মদ ছিটকিয়ে দিতে থাকে এবং বাজারের পরিবেশ গোলাটে করে এক ত্রাসের রাজস্ব কায়েম করে তুলে।

এ অবস্থায় পালবাজারের ব্যবসায়ীরা অতিষ্ঠ হয়ে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আব্দুর রশিদকে বিষয়টি অবগত করে। মডেল থানার ওসির নির্দেশে চাঁদপুর শহরের নতুনবাজার পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এস.আই) মো: ইসমাইল হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ মদ্যপ ও মাদক সেবন অবস্থায় শাহাদাত হোসেন হাওলাদারকে গ্রেফতার করে চাঁদপুর মডেল থানায় নিয়ে যায়। সেখান থেকে সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসকের মাধ্যমে মদ্যপ ও মাদক সেবনের আলামত সংগ্রহ করে তাকে চাঁদপুর মডেল থানায় সোপর্দ করে। শনিবার রাতেই মডেল থানার পুলিশ তাকে থানার হাজতে রেখে দেয়। রোববার বিকেলে মাদক সেবনকারী শাহাদাত হাওলাদারকে পুলিশ আদালতে পাঠায়।

পালবাজারের ব্যবসায়ীদের অভিযোগ অভিযুক্ত মদ্যপ পানকারী শাহাদাত হাওলাদার প্রায় সময় মাদক ও মদ্যপ পান করে বাজারে প্রবেশ নস্ট করে ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের ওপর হামলা চালায় এবং অশালিন আচরণ করে থাকে। তাকে কেহ নিয়ন্ত্রন করতে পারেনা। সে কোন লাইন্সেসদারী মদ পান করার অনুমতি না থাকলেও পালবাজারের মদের ব্যবসায়ী, মদের দোকানদার তার কাছে মদ বিক্রি করায় সে মদ পান করে এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছে।

ব্যবসায়ীরা আরো বলেন, মদের দোকানদার যেন কারকাছে ও শাহাদাত হাওলাদারের কাছে অবৈধ পন্থায় মদ বিক্রি না করে সে জন্য ব্যবসায়ীরা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

এ বিষয়ে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মুহাম্মদ আব্দুর রশিদ জানান, পালবাজারে মদ পান করে মাতলামীর খবর ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে পেয়ে মদ সেবনকারীকে তাৎক্ষনিক আটক করে থানার লকাপে রাখা হয়। রোববার তাকে আইনী প্রক্রিয়ায় আদালতে পাঠানো হয়েছে।
ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম