চাঁদপুরের ইলিশ বলে ভেজাল পচা ইলিশ বিক্রিতে প্রতারণা !

নৌ-বন্দরে ভাসমান নৌকায় বেদেদের ইলিশ বিক্রি

চাঁদপুর: চাঁদপুর নৌ-বন্দরে ভাসমান নৌকায় বেদেদের ইলিশ বিক্রির মহোৎসব দেখা যাচ্ছে। চাঁদপুরের ইলিশ বলে ভেজাল পচা ইলিশ বিক্রিতে প্রতারনা করছেন তারা। এ যেন দিনে-দুপুরে ডাকাতি করার মত অবস্থা।

চাঁদপুর নৌ-টার্মিনাল বা চাঁদপুর নদী বন্দর। যাকে সবাই বলে এক বাক্যে লঞ্চঘাট। এ লঞ্চঘাটে বেদে পরিবারের মাছ বিক্রেতারা দীর্ঘ বছর যাবত ইলিশ মৌসুম আসলে ভেজাল পচা ও অন্যস্থানের ইলিশ চাঁদপুরের ইলিশ বলে বিক্রি করে! এ যেন প্রকাশ্যে দিনের বেলায় ডাকাতি অথাৎ পকেট কাটা হচ্ছে। পদ্মা নদীর সুস্বাদু ইলিশ ক্রয় করতে বিভিন্ন স্থান থেকে এসে এদের কাছে প্রতারনা বা ঠকবাজিতে পড়ে বেশী অর্থে ইলিশ কিনে পাচ্ছেনা সঠিক পদ্মার ইলিশ এদের প্রতি কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন এখন সময়ের দাবী বলে অন্য জেলা থেকে আসা মানুষের।

ইলিশের রাজধানী খ্যাত চাঁদপুর। নামকরণ করা হয়েছিল আব্দুস সবুর মন্ডল যখন এ জেলার জেলা প্রশাসক ছিলেন। এ নিয়ে রাজধানীতে এক বিরাট অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ক্রেতা সাধারণের আগ্রহও চাঁদপুরের ইলিশের প্রতি। মানুষ দূর দূরান্ত থেকে ভিন্ন স্বাদেও স্বাদ গ্রহনে এই ইলিশ সংগ্রহ করতে চাঁদপুর আসেন অনেকে। অনেকেই চাঁদপুরের মেঘনা-পদ্মার স্বাদের ইলিশ নিয়েও বাড়ি যান। আড়তগুলোতে সাধারণত, ইলিশ টাটকা পাওয়া যেতে দেখা যায়। বাহির থেকে ক্রয় করার চাইতে আড়তে ভেজালও তুলনামূলক কম। যদিও ক্ষেত্র বিশেষে বরিশালে বা নামার ইলিশ চাঁদপুরের ইলিশ বলে বিক্রির অভিযোগ হরহামেশে রয়েছে। কিন্তু দেখেশুনে কেনা গেলে আসলটাই পাওয়া যায় বলে ক্রেতার অভিমত। দামেরও তারতম্য আছে।

কিন্তু চাঁদপুরের লঞ্চ ঘাটে বেদে পরিবারের লোকেরা মাছ বিক্রেতারা সারিবদ্ধভাবে তাদের ভাসমান নৌকায় করে যে ইলিশ বিক্রি করে তা কতটা চাঁদপুরের তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়? অনেকেই কেনার পর অভিযোগ করেছেন, তারা চাঁদপুরের ইলিশের স্বাদ পাননি। তাদের সাথে প্রতারনা করে বরিশাল, দক্ষিন অঞ্চলের বা অন্যস্থানের ইলিশ দিয়ে দেওয়া হয়।

তারা অভিযোগ করেছেন, ঘাট থেকে ইলিশ কিনে ঠোকেছেন। বিভিন্ন স্থান থেকে চাঁদপুরে ইলিশ ক্রয় করতে আসা ক্রেতারা এই ঠকবাজি বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন সংশ্লিস্ট প্রশাসনের কাছে।

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী শনিবার তার ফেসবুক পেজে এ নিয়ে কথা বলেন।

‘আর কতো চাঁদপুরের বদনাম করবে ওরা’ শিরোনামে দেওয়া পোস্টে তিনি বলেন, এমনসব পচা ইলিশ নিয়ে লঞ্চ ঘাটে হাঁক ডাক! আমি ঠকি এদের কাছে, তবুও ভালো! কারণ আমি চাঁদপুরের! কিন্তু যে কিনা দূরদেশি, যার কাছে আমার মেঘনা পদ্মার ইলিশের এতো সুনাম সে কেন পচা ইলিশ কিনে ঠকবে? তিনি প্রশাসনের প্রতি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম