গোপনে দাফনের পর কবর থেকে মরদেহ উত্তোলন, গ্রেফতার ২

ছবি: ফোকাস মোহনা.কম

মতলব (চাঁদপুর): চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের বাড়ৈগাঁও গ্রামে ফারুক প্রধান (৪০) নামে ব্যক্তির মরদেহ গোপনে দাফনের পর কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। ঘটনাটি রহস্যজনক হওয়ার কারণে সন্দেহজনক দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১২ জুলাই) কাউকে না জানিয়ে গোপনে দাফনের এই ঘটনা ঘটে। বুধবার (১৩ জুলাই) মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়।

স্থানীয়ভাবে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, ১২ জুলাই ডাটিকারা গ্রামের বাচ্চু ফকিরের ছেলে ফারুক প্রধান মারা গেলে কাউকে না জানিয়ে এলাকার ওসমান গণি (৫৮) ও আল-আমিন (২৮)সহ কয়েকজন মিলে গোপনে দাফন কাজ সম্পাদন করে।

গোপনে দাফন দেয়ার খবর চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসীর মাঝে মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে গুঞ্জন ও রহস্যের সৃষ্টি হয়। এ ব্যাপারে মৃত ফারুক প্রধানের মা জাহানারা বেগম বাদী হয়ে মতলব দক্ষিণ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং-৪/৯৬, তারিখ- ১২ জুলাই। মামলা দায়েরের প্রেক্ষিতে বুধবার (১৩ জুলাই) ফারুক প্রধানের মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সেটু কুমার বড়ুয়া, সহকারী পুলিশ সুপার (মতলব সার্কেল) ইয়াসির আরাফাত, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমিন।

এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে দুজনকে আটক করেছে মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশ। আটককৃতরা হচ্ছে ওসমান গণি ও আল-আমিন। তাদের বাড়ি বাড়ৈগাঁও গ্রামে।

মতলব দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, ফারুক প্রধানের মৃত্যু নিয়ে এলাকায় গুঞ্জন চলছে। আমরা অভিযোগ পেয়ে তার মরদেহ উত্তোলন করেছি। ময়না তদন্তের জন্যে মরদেহ চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম