গাইবান্ধার জ্বীনের বাদশা বুলবুল চাঁদপুরে গ্রেফতার

চাঁদপুর : সারাদেশে মোবাইল ফোনে জ্বীনের বাদশা পরিচয় দিয়ে মানুষের কাছ থেকে টাকা আদায় করে থাকে একটি চক্র। এই চক্রের সদস্যরা সাধারণ মানুষকে টার্গেট করে গভীর রাতে মোবাইল ফোনে কল দিয়ে থাকে। পরে কৌশলে বিভিন্ন কথা বলে মানুষের সাথে প্রতারণা করে থাকে। এমন এক প্রতারক গাইবান্ধা জেলার জ্বীনের বাদশা বুলবুল নামের একজনকে আটক করেছে চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে তাকে চাঁদপুর আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। সোমবার (৯ জানুয়ারি) বিকেলে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের সামনের সরকারি কেজি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ থেকে থানার সহকরী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হেলাল উদ্দিন তাকে গ্রেফতার করেন।

পুলিশ জানায়, সদর উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের বাখরপুর গ্রামের দেলোয়ার গাজীকে ৩ জানুয়ারি গভীর রাতে জ্বীনের বাদশা পরিচয় ফোন করেন। পরে নামাজ আদায় করেছে কিনা তার কাছে জানতে চায়। স্বর্ণালংকার, ধন-দোলত পাবে বলে মসজিদের জন্য জায়নামাজ দেওয়ার কথা বলে ৫ জানুয়ারি বিকাশে ৫ হাজার টাকা দেয় দেলোয়ার। পরে ৮ জানুয়ারি আবার ৩ হাজার ৩শ ৩৩ জন জ্বীনকে সৌদি আরবের মিষ্টি খাওয়াবে বলে ৬০ হাজার টাকা নেয়। পরে ৯ তারিখ মিষ্টির জন্য আরোও টাকা চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের সামনের ১২৫ নং সরকারি কেজি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ থেকে নিতে আসলে কৌশলে তাকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আবদুর রশিদ বলেন, জ্বীনরা কখনও কারো মোবাইল ফোনে কল দিতে পারে না। একটি চক্র সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিয়ে নগদ টাকাসহ অন্যান্য মালামাল নিয়ে যাচ্ছে। তাই আপনারা কেউ প্রতারিত হবেন না। সকলকে সচেতন হতে হবে। এ ধরনের ঘটনা ঘটলে আপনারা চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশ কে বিষয়টি অবহিত করবেন। বুলবুলের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম