কোড়ালিয়া পৌর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ

চাঁদপুর : চাঁদপুর পৌরসভা পরিচালিত কোড়ালিয়া পৌর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার জাতীয় পতাকা উত্তলন এর মধ্যদিয়ে শুভ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি পৌরসভার প্যানেল মেয়র অ্যাড. হেলাল হোসাইন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম ভুঁইয়া। বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মোঃ হারুন অর রশিদ পাটওয়ারীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর খালেদা আক্তার, শিক্ষা কর্মকর্তা ওমর ফারুক, দাতা সদস্য রিয়াজ মোরশেদ পাটওয়ারী প্রমুখ। বিকেলে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পৌর মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল।

তিনি বক্তব্যে বলেন, শিশুরা কাদামাটির মত, তাদেরকে যেভাবে গড়ে তুলবে, তেমন ভাবেই বেড়ে উঠবে। শিশুদেরকে শিক্ষা দিতে হবে তারা যেন, অন্যের ক্ষতি না করে। শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে শিক্ষা অর্জন করবে, কিন্তু ভাল মানুষ হওয়ার শিক্ষা মা কেই দিতে হবে। চাঁদপুর পৌরসভা পরিচালিত শহরের ৭ টি বিদ্যালয় পরিচালিত হচ্ছে। এই ৭ টি বিদ্যালয় পরিচালনা করতে প্রতিবছর প্রায় কোটি টাকা ভতুর্কি দিচ্ছে পৌরসভা। শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির সহযোগিতায় পৌরসভা পরিচালিত দুইটি বিদ্যালয়ের বহুতল ভবন করা হয়েছে। এতে করে আরো বেশি বেশি শিক্ষর্থী শিক্ষা অর্জন করতে পারবে।

তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, অনেক অভিভাবকের কষ্ট রয়েছে শিক্ষা অর্জন করতে পারেন নাই। সেই অভিভাবকদের বলছি আপনাদের সন্তানের শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে তা পুশিয়ে নিবেন। শেখ হাসিনার সরকার শিক্ষার সর্বোচ্চ প্রাধান্য দিচ্ছে। সেই কারণেই বছরের প্রথম দিকে সকল শিক্ষার্থীর হাতে বিনা মূল্যে বই তুলে দিয়েছেন। শেখ হাসিনার সেই উন্নত রাষ্ট্রের শিক্ষা দিতে হবে শিক্ষার্থীদের। এরাই হবে আগামী দিনের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার ও রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব। নান্দনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। সপ্ন দেখতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সপ্ন দেখেছিলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার সপ্ন। আপনারাও সপ্ন দেখুন, সন্তানের উন্নয়নের।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আমিনুর রহমান বাবুল, পৌর প্যানেল মেয়র মোহাম্মদ আলী মাঝি ও ফরিদা ইলিয়াস, পালবাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক সফর উদ্দিন মাষ্টার। উপস্থিত ছিলেন ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাদশা, বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা আফরোজা খানম, কবির হাওলাদার, ইসরাতুল জান্নাত ও মোঃ শাহাবুদ্দিন প্রমুখ। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব মোঃ মুসলিম বেপারী।
ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম