কুমিল্লা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে মতবিনিময়

কুমিল্লা: আসন্ন কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন অনেকেই। তৃণমূল নেতাকর্মীদের সমর্থনে জনপ্রিয় প্রার্থী হিসেবে দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আলী আকবর আলোচনার শীর্ষে। ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে শুরু করে ৩৫ বছর আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে পরিচ্ছন্ন ও তারুণ্যদ্বীপ্ত নেতাদের একজন সফল ব্যবসায়ী ও বিশিষ্ট শিল্পপতি আলী আকবর দলীয় ভাবে মনোনীত হবেন বলে আশাবাদী ছিলেন সমর্থনকারী নেতাকর্মীগণ। 
জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র হিসেবে প্রার্থী হতে পারেন এমন ধারনা ও গুঞ্জন কে মিটিয়ে দিয়ে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী নেত্রী ও দলের সীদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাবলু’র বাসায় ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন বার্তা নিয়ে ১২ সেপ্টেম্বর বিকেলে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থনকারীদের নিয়ে হাজির হন তিনি।  ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময় দলীয় প্রার্থীর পক্ষে সমর্থন জানিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাবলু’র বাসায় এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন বুড়িচং উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ করিম মজুমদারসহ জেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
পরে এদিন সন্ধ্যায় ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন সৈয়দপুর এলাকাস্থ হোটেল নূর মহলে দলীয় নেতাকর্মী সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের সাথে নিয়ে মতবিনিময় সভা ও নৈশভোজের আয়োজন করা হয়।
উক্ত মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্য আলী আকবর বলেন, “পূর্বেই ঘোষণা করেছি দল ও নেত্রীর সিদ্ধান্তের বাইরে নির্বাচন করবো না। জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ নেতাদের অনেকেই মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। যারা মনোনয়ন চেয়েছেন আমি মনে করি তারা সকলেই যোগ্য। তবুও নিয়ম অনুযায়ী একটি পদে একজনই মনোনয়ন পাবে এটাই স্বাভাবিক। দল ও নেত্রী যাকে যোগ্য মনে করেছে তাকেই মনোনীত করেছে। দলের সুসময় ও দুঃসময়ে যেমন সামনে সাড়িতে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তেমনি ভাবে ৭১’ এর রণাঙ্গনে বঙ্গবন্ধুর ঢাকে সাড়া দিয়ে দেশের জন্য মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ ভুমিকা রেখেছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাবলু ভাই। সুদীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের পরন্ত বেলায় দল এবং মাননীয় নেত্রী তাকে মূল্যায়ন করায় আমিও ব্যক্তিগত ভাবে খুশি। তার বিজয় নিশ্চিতে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবো। আশাকরি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়ে সকলকে সাথে নিয়ে কুমিল্লাকে আরো এগিয়ে নেবেন আওয়ামী লীগের অভিজ্ঞ ও পরিচ্ছন্ন নেতা বাবলু ভাই। নেত্রীর সীদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে স্বতন্ত্র বা বিরোধীতার প্রশ্নই আসে না। এখন তো আমার রাজনৈতিক জীবনের শুরু, যেতে হবে বহুদূর।” এ সময় উপস্থিত দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থক উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন- “এর আগে কোন নির্বাচনে মনোনয়ন চাইনি এটিই প্রথম, আল্লাহ চাইলে হয়তোবা সামনে আরো ভালো কিছু অপেক্ষা করছে আমাদের জন্য। যারা আমার পক্ষে বিভিন্ন ভাবে প্রচার প্রচারণা ও সমর্থন জানিয়েছেন সে সকল নেতাকর্মী, সহযোদ্ধা, শুভাকাঙ্ক্ষীসহ বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেকট্রনিকস, অনলাইন মিডিয়া ও গণমাধ্যম কর্মীদের প্রতি আন্তরিক ভাবে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আপনাদের সমর্থন ভালোবাসা এবং ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় সকলকে সাথে নিয়ে দেশ, দল ও মানুষের কল্যাণে এভাবেই এগিয়ে যাবো”
আইপি টিভি মেঘনা টেলিভিশনের পরিচালক এম এইচ মহিউদ্দিনের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ করিম মজুমদার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- মনোহরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান জাকির হোসেন। এ ছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন- স্থানীয় আওয়ামী নেতা নজরুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, আবু সুফিয়ান, মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সচিব উজ্জ্বল হোসেন তুহিন, দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি বেলাল হোসাইন মানছু, ছাত্রলীগ নেতা জিএম হেলাল, হাজী সাইফুল, মাসুম বিল্লা, শাওনসহ আওয়ামী অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীগণ।
ফম/এমএমএ/

তাপস চন্দ্র সরকার | ফোকাস মোহনা.কম